বিশ্বে কতগুলি জীববৈচিত্র্য হট স্পট (Biodiversity Hot Spot) রয়েছে

এখান থেকে শেয়ার করুন
  • 1
    Share

পরিচ্ছেদসমূহ

How many Biodiversity Hot Spot in World

জীববৈচিত্র্য হট স্পট (Biodiversity Hot Spot)

জীববৈচিত্র্য

বর্তমান পরিবেশ বিষয়ক চিন্তাধারার একটি পরিচিত পরিভাষা হল ‘জীববৈচিত্র’। বৈচিত্র হল জীবের প্রধান বৈশিষ্ট। পৃথিবীর বৈচিত্র্যময় পরিবেশের কারণেই বিভিন্ন অঞ্চলে বিভিন্ন ধরণের জীব গোষ্ঠীর উদ্ভব ঘটেছে। আর এখান থেকে জীববৈচিত্র্য হট স্পট (Biodiversity Hot Spot) এর উদ্ভব।

♦ জীববৈচি্ত্র্যের ধারনা ও জনকঃ-

বাংলা ‘জীববৈচিত্র্য’ শব্দটির ইংরেজি অর্থ হল ‘Biodiversity’। ‘Biodiversity’ শব্দটি ‘Biological’‘Diversity’ এই দুটি শব্দের সংযুক্তিকরণের ফলে সৃষ্টি। ইতিহাস ঘাটলে জানা যায় যে, ১৯৬৮ সালে বন্যপ্রানী বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ‘রেমন্ড দাসমান’ “একটি ভিন্ন ধরণের দেশ” নামক গ্রন্থে প্রথম ‘জীবগত বৈচিত্র্য বা Biological Diversity’ শব্দটি ব্যবহার করেন। কারও কারও মতে জীবগত বৈচিত্র্য (Biological Diversit) শব্দটি প্রথম ব্যবহার করেন মার্কিন জীববিজ্ঞানী ‘থমাস লাভজয় ( Thomas E. Lovejoy)। যদিও বা তিনি এই শব্দটি ব্যবহার করেছিলেন ১৯৮০ সালে, এর আগে অর্থৎ ১৯৬৮ সালে ‘দাসমান’ শব্দটি ব্যবহার করে নিয়ে ছিলেন। এই নিয়ে একটি বিতর্ক থেকেই যায়!

এর পর ১৯৮৬ সালে যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটন বসুন্ধরা সম্মেলনে বিজ্ঞানী ওয়ালটার জে. রোসেন (Walter J. Rosen) প্রথম ‘জীববৈচিত্র্য বা বায়োডাইভারসিটি বা Biodiversity’ শব্দটি ব্যবহার করেন। এর পর ১৯৯২ খ্রিস্টাব্দে ব্রাজিলের রিও ডি জেনিরোতে অনুষ্ঠিত ‘পরিবেশ ও বিকাশ’ সম্পর্কিত ‘বসুন্ধরা সম্মেলনের’ জীববৈচিত্র্য শব্দটি ব্যবহৃত হওয়ার পরেই সারা বিশ্বে এটি ব্যপকভাবে প্রসার লাভ করে।

জীববৈচিত্র্যের রূপরেখা
ভারতের জীববৈচিত্র্যের রূপরেখা

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য; ‘জীববৈচিত্র্য’ বিষয়টিকে সারা পৃথিবীর বিজ্ঞানী মহলে প্রচার ও জনপ্রিয় করেছিলেন বিজ্ঞানী ‘এডওয়ার্ড ওসবর্ন উইলসন (E.O. Wilson), তাই উইলসন কে জীববৈচিত্রের জনক বলা হয়।

♦ জীববৈচিত্র্য কাকে বলে? জীববৈচিত্র্যের সংজ্ঞাঃ-

সাধারণত নির্দিষ্ট অঞ্চলে বা বৃহদায়তন বাস্তুতন্ত্রের মধ্যে বসবাসকারী অসংখ্য উদ্ভিদ ও প্রানীগোষ্ঠীকে এক সাথে জীববৈচিত্র্য বলা হয়।কিন্তু বিভিন্ন সময়ে বিজ্ঞানী জীববৈচিত্র্যের সংজ্ঞা বিভিন্ন ভাবে প্রদান করেছেন। নিম্নে কয়েকটি সংজ্ঞা তুলে ধরা হল-

১. জে. সি. ব্যারো প্রদত্ত সংজ্ঞা-

“কোনো নির্দিষ্ট বাস্তুতন্ত্রে বিভিন্ন ধরণের প্রজাতির বৈচিত্র্য এবং কোনো একটি প্রজাতির মধ্যে যে জিনগত বৈষম্য তাকেই জীববৈচিত্র্য বলা হয়”।

২. ডি কাস্ট্রি প্রদত্ত সংজ্ঞা-

“ নির্দিষ্ট অঞ্চল ও নির্দিষ্ট সময়ে জিন, প্রজাতি এবং বাস্তুতন্ত্রের বৈচিত্র্যের মিথষ্ক্রিয়া ও যোগফল হল জীববৈচিত্র্য”।

৩. UNEP প্রদত্ত সংজ্ঞা-

“নির্দিষ্ট অঞ্চলে জিন, প্রজাতি ও বাস্তুতন্ত্রের যোগফল হল জীববৈচিত্র্য”।

৪. জীববৈচিত্র্যের পূর্ণাঙ্গ সংজ্ঞা-

নির্দিষ্ট সময় ও নির্দিষ্ট অঞ্চলে জিন, প্রজাতি ও বাস্তুতন্ত্রের বৈচিত্র্য অনুযায়ী সেই অঞ্চল বা স্থানে জীবের যে বৈচিত্র্য ও বৈষম্য এবং স্থান ও সময় পরিবর্তনে জীবকূলের বৈশিষ্ট্যের যে পরিবর্তন ঘটে তাকে জীববৈচিত্র্য বলা হয়।

♦ অতিবৃহৎ জীববৈচিত্র্য কেন্দ্র কাকে বলে?

স্বল্প পরিমান স্থানে সর্বাধিক সংখ্যায় ও পৃথিবীর অধিকাংশ জীব প্রজাতির কেন্দ্রীভবন ঘটে ফলে ওই স্থানে সুবৃহৎ জীব প্রজাতি যুক্ত স্থানে পরিনত হয়, একে অতিবৃহৎ জীববৈচিত্র্য কেন্দ্র বা মেগাবায়োডাইভারসিটি বা Megabiodiversity বলে।

পৃথিবী ব্যাপী জীববৈচিত্র্যের বন্টন পর্যবেক্ষন করলে দেখা যায় পৃথিবীর মোট জীববৈচিত্র্য অঞ্চলের মধ্যে ৬০%-৭০% এলাকায় অতিমাত্রায় জীববৈচিত্র্য বিদ্যমান।

১৯৮৮ সালে ‘স্মিথসোনিয়ার’ জীববৈচিত্র্য সম্মেলনে প্রথম ‘মেগাবায়োডাইভারসিটি বা Megabiodiversity শব্দটি ব্যবহার করেন। পৃথিবীর প্রায় ২০০ টি দেশের মধ্যে মাত্র ১৭টি দেশে অতিবৃহৎ জীববৈচিত্র্য লক্ষ করা যায়।

Biodiverse Conservation International (BCI) ১৯৯৮ সালে ক্রান্তীয় ও উপক্রান্তীয় মন্ডলে ১৭টি অতি জীববৈচিত্র্য কেন্দ্র চিহ্নিত করেন। এগুলি হল- মেক্সিকো, কলম্বিয়া, ব্রাজিল, পেরু, ইকুয়েডর, ডেমোক্রেটিক রিপাবলিক অফ দা কঙ্গো (জাইরে), মাদাগাস্কার, ইন্দোনেশিয়া, মালয়েশিয়া, ভারত, চিন, অস্ট্রেলিয়া, পাপুয়া নিউ গিনি, ফিলিপিন্স, আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্র, ভেনেজুয়েলা, দক্ষিন আফ্রিকা। এদের মধ্যে ভারত মেগাবায়োডাইভারসিটির তালিকাতে দশম স্থানে রয়েছে।

♦ জীববৈচিত্র্য উষ্মা কেন্দ্র বা জীববৈচিত্র্য হট স্পট কী?

যে সব প্রাকৃতিক আবাসস্থলে সর্বাধিক সংখ্যায় প্রজাতি অবলুপ্তির পথে এবং সংকটিয় অবস্থায় রয়েছে সেই প্রাকৃতিক বাসস্থানকে জীববৈচিত্র্য হট স্পট (Biodiversity Hot Spot) বলে।

♦ জীববৈচিত্র্য হট স্পটের প্রবক্তা কে?

জীববৈচিত্র্য হট স্পট ধারণাটি প্রথম দেন ব্রিটিস বাস্তুতান্ত্রিকবিদ “নরম্যান মায়ার্স”
জীববৈচিত্র্য হট স্পট ধারণাটি প্রথম দেন ব্রিটিস বাস্তুতান্ত্রিকবিদ “নরম্যান মায়ার্স”

জীববৈচিত্র্য হট স্পট ধারণাটি প্রথম দেন ব্রিটিস বাস্তুতান্ত্রিকবিদ “নরম্যান মায়ার্স” ১৯৮৮ খ্রিষ্টাব্দে।

♦ জীববৈচিত্র্য হট স্পট চিহ্নিত করার শর্তাবলী-

নরম্যান মায়ার্স জীববৈচিত্র্য হট স্পট (Biodiversity Hot Spot) চিহ্নিত করার জন্য প্রধান দুটি শর্ত প্রদান করেন। যেমন-

১. অঞ্চলটির প্রজাটির সংখ্যা কম পক্ষে ১৫০০টি হতে হবে। এবং

২. এর মধ্যে প্রায় ৭০% প্রজাতি ওই অঞ্চলটির আদিম জীব হতে হবে।

প্রাথমিক ভাবে নরম্যান মায়ার্স ক্রান্তীয় অরন্যে ১০টি উষ্মাকেন্দ্র বা হট স্পট চিহ্নিত করেছিলেন। এবং তিনি দেখিয়েছিলেন ওই ১০টি হট স্পটের মধ্যে ৪৯৯২৫টি স্থানীয় উদ্ভিদ প্রজাতির সমাবেশ ঘটেছে যেটি বিশ্বের প্রায় ২০%।

♦ রেড ডাটা বই কী?

IUCN দ্বারা প্রকাশিত যে লিখিত দলিলে পৃথিবীর বিলুপ্ত, বিপন্ন প্রভৃতি উদ্ভিদ ও প্রানীদের নাম প্রকাশ করা হয়, তাকে রেড ডাটা বই বলে। এটি ১৯৬৩ সালে প্রথম প্রকাশিত হয়। রেড ডাটা বই ও বিলুপ্ত প্রায় প্রানী গুলির শ্রেনিবিভাগ পড়ার জন্য এখানে ক্লিক করুন।

♦ বিশ্বে কয়টি জীববৈচিত্র্য উষ্মা অঞ্চল বা  জীববৈচিত্র্য হট স্পট (Biodiversity Hot Spot) রয়েছে?

Critical Ecosystem Partnership Fund বা CEPF ৩৬টি হট স্পটের তালিকা উল্লেখ করেছেন। এবং

Biodiversity Conservation International (BCI) ৩৫টি হট স্পটের তালিকা প্রকাশ করেছেন

♦ মহাদেশ অনুসারে বিভিন্ন ধরণের জীববৈচিত্র্য হট স্পটের তালিকা-

ক. আফ্রিকা মহাদেশ-

আফ্রিকাতে মোট ৮টি জীববৈচিত্র্য হট স্পট রয়েছে। যথা- ১) কেপ প্রদেশ, ২) পূর্ব আফ্রিকার উপকুলবর্তী অরন্যাঞ্চল, ৩) পশ্চিম আফ্রিকার জঙ্গল, ৪) সাকুলেন্ট কারু, ৫) মাদাগাস্কার, ৬) ম্যাপুটাল্যান্ড-পোন্ডল্যান্ড-আলবানি ৭) আফ্রিকার হর্ণ অঞ্চল, ৮) ইস্টার্ন আফ্রোমন্টেন।

খ. এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরিয় অঞ্চল-

এশিয়া ও প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে ১৪টি জীববৈচিত্র্য হট স্পট (Biodiversity Hot Spot) অঞ্চল রয়েছে। এগুলি হল- ১) সুন্ডাল্যান্ড, ২) ওয়ালাসিয়া, ৩) ফিলিপিন্‌স, ৪) ইন্দো-বার্মা, ৫) দক্ষিন-মধ্য চীন, ৬) পশ্চিমঘাট পর্বত ও শ্রীলঙ্কা, ৭) দক্ষিন-পশ্চিম অস্ট্রেলিয়া, ৮) নিউ ক্যালিডোনিয়া, ৯) নিউজিল্যান্ড, ১০) পলিনেশিয়া-মাইক্রোনেশিয়া, ১১) হিমালয়, ১২) জাপান, ১৩) ইস্ট মেলানেশিয়া আইল্যান্ড, ১৪) পূর্ব অস্ট্রেলিয়ার বনাঞ্চল।

Biodiversity_Hotspots_Map
জীববৈচিত্র্য হট স্পট মানচিত্র

গ. ইউরোপ ও মধ্য এশিয়া-

এই অঞ্চলে মোট চারটি হট স্পট রয়েছে। যথা- ১)  মধ্য এশিয়ার পার্বত্য অঞ্চল, ২) দ্য ইরানো-আনাতোলিয়ান, ৩) ককেসাস, ৪) ভুমধ্যসাগরিয় অঞ্চল

ঘ. উত্তর-মধ্য আমেরিকা-

সমুদ্রের জীববৈচিত্র
সমুদ্রের জীববৈচিত্র

এই অঞ্চলে ৫টি হট স্পট রয়েছে। যেগুলি হল- ১) উত্তর আমেরিকার উপকূলিয় সমভূমি, ২) মেসো আমেরিকা, ৩) ক্যারিবিয়ান দ্বীপপুঞ্জ, ৪) ম্যাড্রিয়ান পাইন ওক উডল্যান্ডস, ৫) ক্যালিফোর্নিয়া

ঙ. দক্ষিন আমেরিকা

এখানে মোট ৫টি জীববৈচিত্র্য হট স্পট রয়েছে। যথা- ১) তুমবেস-চোকো-ম্যাগডেলেনা, ২) ক্রান্তীয় আন্দিজ, ৩) মধ্য চিলি, ৪) ব্রাজিলের আটলান্টিক জঙ্গল, ৫) ব্রাজীলের সেরাডো [সবচেয়ে সমৃদ্ধতম জীববৈচিত্র্য হট স্পট (Biodiversity Hot Spot) এটি]।

♦ ভারতে কয়টি জীববৈচিত্র্য হট স্পট রয়েছে?

ভারত পৃথিবীর অন্যতম একটি জীববৈচিত্র্যের দেশ। ভারতে প্রধান তিনটি এবং অপ্রধান ১টি অর্থাৎ মোট ৪টি জীববৈচিত্র্য হট স্পট রয়েছে । এগুলি হল-

১. হিমালয় অঞ্চল-

এই নামদাফা, শিরোহট, বক্সা, সেঞ্চল, পিথোরাগড়, ভ্যালি অব্‌ ফ্লাওয়ার্স, চোপ্‌তা উপত্যকা প্রভৃতি হল এই অঞ্চলের প্রধান হট স্পট কেন্দ্র।

ভারতের জীববৈচিত্র্য হট স্পট মানচিত্র
ভারতের জীববৈচিত্র্য হট স্পট মানচিত্র

২. পশ্চিমঘাট পর্বত-

ভদ্রা ব্যাঘ্র রিসার্ভ, কুদ্রেমুখ জাতীয় পার্ক, পেরিয়ার ব্যাঘ্র প্রকল্প, অগস্ত্যমালাই পাহাড় প্রভৃতি অঞ্চল জীববৈচিত্যে সমৃদ্ধ।

৩. ইন্দো-বার্মা অঞ্চল-

ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলের অন্তর্গত টিরাপ, তুরা প্রভৃতি উল্লেখযোগ্য হটস্পট কেন্দ্র।

৪. অন্যান্য-

প্রধান তিনটি হট স্পট ভারতের মূল ভূখন্ডের অন্যররগত হলেই চতুর্থ নম্বরটি (সুন্দাল্যান্ড ও বলা হয়) ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র অঞ্চলকে নিয়ে গঠন করা হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে উত্তর আন্দামান, লিটল ও গ্রেট নিকোবর, দক্ষিন রিফ্‌, পশ্চিমবঙ্গের ‘নেওয়া ভ্যালি এবং মণিপুরের লোক্‌টাক হ্রদ অঞ্চলকে অতি সম্প্রতি ভারতের হট স্পট অঞ্চলের মধ্যে স্থান দেওয়া হয়েছে। এছাড়া সুন্দরবন, ভিতরকণিকা প্রভৃতি এই অঞ্চলের মধ্যে রয়েছে।

—–সমাপ্ত—–

স্টুডেন্টস কেয়ার দ্বারা সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত – অফলাইন বা অনলাইন প্রকাশনার জন্য স্টুডেন্টস কেয়ারের লিঙ্ক সহ সূত্র দেওয়া আবশ্যক।

#How many Biodiversity hot spot in India , #Father of Biodiversity, #Who used the term Biodiversity hot spot, #Megabiodiversity #megadiversity ranking #মেগাবায়োডাইভারসিটি তালিকাতে ভারত কত নম্বরে রয়েছে ,#জীবভূগোল ,#Biogeography #ভূগোল ও পরিবেশ

এখান থেকে শেয়ার করুন
  • 1
    Share
error: স্টুডেন্টস কেয়ার কতৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত !!