“বায়ু থেকে জল” উৎপাদনের প্রতিযোগীতার ফাইনালে ভারতীয় সংস্থা ‘Uravu’

এখান থেকে শেয়ার করুন
  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
    1
    Share

আমরা সকলেই জানি ভারতের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ২০১৫ সালে একটি প্রকল্প ঘোষণা করেছিলেন। সেটি হল ‘স্টার্টআপ ইন্ডিয়া’। এই প্রকল্পকে ভারত সরকার সবরকম উপযুক্ত সুযোগ সুবিধা প্রদান করে থাকে নতুন কিছু উদ্ভাবনের জন্য। এই প্রকল্পের আওতায় ভারতের এক স্টার্টআপ ‘Uravu’ এমন এক যন্ত্রাংশ আবিষ্কার করলেন যে কিনা বায়ু থেকে জল উৎপাদন করে দেবে। অবাক হবেন না এটাই বাস্তব।

Water-Harvesting
চিত্রটি শুধুমাত্র একটি নমুনা। বায়ু থেকে জল তৈরির একটি উদাহরণ দেখানো হয়েছে (সূত্র)

আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রে Water Abundance XPRIZE নামক একটি প্রতিযোগীতা হচ্ছে প্রায় দুই বছর ধরে। সেখানে ২৫টি দেশ থেকে প্রায় ৯৮টি টীম অংশগ্রহন করলেও, ফাইনাল পর্বে মাত্র ৪টি দেশ থেকে ৫টি দল স্থান অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে। এই পাঁচটি দল এখন পর্যন্ত প্রায় ২৫০,০০০ মার্কিন ডলার জিততে সক্ষম হয়েছে; এবার তাদের লক্ষ ১.৫ মিলিয়ন ডলার। যেটি ঘোষণা করা হবে আগামী আগষ্ট মাসে। সেই লক্ষেই এই পাঁচটি দল নিজেদের মত করে প্রস্তুতি নিয়ে চলেছে। এই প্রতিযোগিতার মাধ্যমে এমন একটি যন্ত্রাংশ তৈরি করার চেষ্টা চলছে, যেটা কিনা বায়ু থেকে জল তৈরি করে দিতে পারবে।

এবার দেখে নেওয়া যাক ফাইনাল পর্বে স্থান পাওয়া পাঁচটি দল কে কে- আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্র, অস্ট্রেলিয়া, ব্রিটেনের সাথে সাথে আমাদের ভারতবর্ষ থেকেও একটি দল মূল পর্বের যোগ্যতা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে। এই পাঁচটি দল হল-

১. HYDRO HARVEST OPERATION- এই দলটি অস্ট্রেলিয়া থেকে অংশগ্রহন করেছে। এদের টিম লিডার হলেন Behdad Moghtaderi।

HYDRO HARVEST OPERATION
HYDRO HARVEST OPERATION

২. JMCC WING- এই দলটি ব্রিটেনের। এদের টীম লিডার হলেন- James McCanney

JMCC WING
টীম লিডার JMCC WING

৩. URAVU- উরাভু নামক দলটি আমাদের ভারতের। এই দলের অধিনায়ক হলেন Swapnil Shrivastav

URAVU
ভারতীয় URAVU টীমের চারজন সদস্যকে দেখতে পাচ্ছেন।

৪. SKYDRA– আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্র। দলের অধিনায়ক- Jacques Laramie

SKYDRA
SKYDRA

৫. THE VERAGON & THINAIR PARTNERSHIP- আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্র। দলের অধিনায়ক- Laura Dean

পাঁচটি চূড়ান্ত প্রতিযোগীকে প্রযুক্তিগত ডকুমেন্টেশন, পরীক্ষার ফলাফল এবং একটি সমাধান প্রোটোটাইপের ভিডিওর ভিত্তিতে নির্বাচিত করা হয়েছে যা কোনও উৎসের মাধ্যমে বায়ুমণ্ডল থেকে সরাসরি জল বের করে আনতে পারে এবং যেটা কিনা লিটার প্রতি ন্যূনতম খরচের মধ্যেই। চূড়ান্ত প্রতিযোগীদের মধ্যে রয়েছে স্টার্টআপ, প্রফেসর, পেশাদার বিজ্ঞানীরা এবং ইঞ্জিনিয়ারও।

স্টুডেন্টস কেয়ারের ফেসবুক পেজ লাইক করুন এখানে ক্লিক করে

XPRIZE-র উদ্দেশ্য- জল আমাদের গ্রহের জীবনের একটি প্রধান উপাদান। পৃথিবীর পৃষ্ঠের ৭১% এরও বেশি অংশ জল দ্বারা আবৃত থাকে, তবে ৪৩ টি দেশে ৭৮০ মিলিয়ন মানুষ উপলব্ধতা, অসম বিতরণ, প্রবেশাধিকার এবং দূষণের কারণে জল সংকটের মুখোমুখি হচ্ছে। ২০২৫ সালের মধ্যে, আনুমানিক ১.৮ বিলিয়ন মানুষ সম্পূর্ণ জল সংকটের সাথে বসবাস করবে; বিশ্বের প্রায় ২/৩ ভাগ জনসংখ্যা জলসংকটের অধীনে বসবাস করবে বলে অনুমান করা হচ্ছে।

Atrapanieblas or fog collection in Alto Patache
Atrapanieblas or fog collection in Alto Patache, Atacama Desert, Chile. Image courtesy of Pontificia Universidad Católica de Chile

বায়ুমণ্ডলে প্রায় তিন কোয়াড্রিলিয়ন গ্যালন জল দিয়ে পৃথিবীর প্রতিটি মানুষের প্রয়োজন মেটতে পারবে বলে বিজ্ঞানিদের ধারণা; বায়ুমন্ডলীয় নিষ্কাশনটি তাজা জল প্রবেশ করতে পারে, তাজা জল তৈরি করতে পারে, যেখানে এটি বর্তমানে অনুপলব্ধ অথবা প্রবেশযোগ্য নয়। এর সমাধানের একটি বৈজ্ঞানিক সমাধানের প্রচেষ্টার জন্য বিশ্ব ব্যাপী এই উদ্বেগ নেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন- স্টিফেন হকিং এর জীবনী

এই প্রতিযোগিতার জন্য স্পন্সরশীপ প্রদান করেছে- অস্ট্রেলিয়ার এইড এবং ভারতের টাটা গোষ্ঠী।

প্রতিযোগীদের লক্ষমাত্রা- সারা বিশ্বব্যাপী ৯৮টি দল নিয়ে এই প্রতিযোগীতা শুরু হয়েছিল একটি মাত্র লক্ষমাত্রা নিয়ে, যেকোনো প্রকারে বাতাস থেকে জল উৎপাদন করা। এবং শুধু এটুকুই নয়, নির্দিষ্ট লক্ষমাত্রাও স্থির করে দেওয়া হয়েছে; সম্পূর্ণ ১০০ শতাংশ পুনর্নবীকরণযোগ্য শক্তি ব্যবহার করে বায়ুমণ্ডল থেকে প্রতিদিন সর্বনিম্ন ২০০০ লিটার জল উৎপাদন করবে এমন একটি যন্ত্রাংশ তৈরি করতে হবে। এবং উৎপাদিত মূল্য হবে লিটার প্রতি দুই সেন্ট (১ সেন্ট=প্রায় ৬৪ পয়সা)।উড়াভু টীম

এই প্রতিযোগীতায় সেরা ৫টি দলের মধ্যে স্থান পাওয়া স্টার্টআপ ইন্ডিয়ার প্রতিযোগীরাও রয়েছে। স্টার্টআপ দলের নাম ‘উরাভু’। যেটি হায়দ্রাবাদ এর একটি কোম্পানি। উরাভু একটি বহুবিস্তৃত দল, যার পরিচালনার দায়িত্বে রয়েছে ইঞ্জিনিয়ার থেকে শুরু করে, বিজ্ঞানী, আর্কিট্রাকচার প্রমুখ। স্টার্টআপ দের মতে-

“believes in working on hard problems which are technologically achievable and also culturally and socially salient”.

উরাভু ভারতকে আবারো একবার বিশ্বের শীর্ষ স্তরে নিয়ে যেতে পারবে কিনা সেটা জানার জন্য আমাদের ২০১৮ সালের আগষ্ট মাস পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। কারন ঐ সময়েই ফাইনাল ঘোষণা করবে XPRIZE। XPRIZE-র শর্ত যে দল পুরন করতে পারবে তারাই জয়ী হবে। XPRIZE এর মতে-

“At the end of the testing phase, the team whose solution enables the greatest ability to create decentralised access to water, giving people the power to access fresh water whenever and wherever they need it, will win the prize”।

তথ্য সংগ্রহে- স্টুডেন্টস কেয়ার

তথ্য সূত্র- www.thehindu.com

কমেন্ট বক্সে মতামত জানান

error: স্টুডেন্টস কেয়ার কতৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত !!