৬৫০+ বাংলা বাগধারা pdf || Bangla Bagdhara PDF || বাংলা ব্যাকরণ

এখান থেকে শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  

বাংলা বাগধারা pdf

বাংলা বাগধারা (Bangla Bagdhara) বাংলা ভাষার শব্দ ভাণ্ডারকে অনেক সমৃদ্ধ করেছে। বিশেষ অর্থে ব্যবহৃত হয় বলে বাগধারা ভাষাকে সুন্দর ও আকর্ষণীয় করে তোলে। বাংলা ব্যাকরণ (bangla grammar) এর অন্যতম মজার ও সুন্দর অধ্যায় বলা চলে এই বাগধারা কে। বাক্যরীতি থেকে বাগভঙ্গি, সব ক্ষেত্রেই এর নিজস্ব শৈলী।

WBCS, PSC, SSC, Rail, Group-D/C, বিসিএস (BCS) সহ যেকোনো চাকুরী পরীক্ষা, মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষায় বাগধারা থেকে প্রশ্ন আসা খুবই সাধারণ ব্যাপার। বিসিএস বাংলা ব্যাকরণ অংশে এমন কোন বছর নেই যেবার এখান থেকে প্রশ্ন হয়নি। তাই জানার জন্য কিংবা পরীক্ষায় (বিসিএস বাংলা প্রস্তুতির জন্য) ভালো করার জন্য নিয়মিত বাগধারা অনুশীলন করা দরকার। সেজন্যই বাগধারা কে আপনাদের কাছে আরও সহজ ও সুন্দর ভাবে উপস্থাপন করার জন্য এই অ্যাপটি নিয়ে আমরা হাজির হয়েছি। বাংলা বাগধারার (Bangla Bagdhara) সব সংগ্রহ পর্যায়ক্রমে উপস্থাপন করা হবে। ছাত্রছাত্রী ও পাঠকদের পছন্দ এবং বিভিন্ন পরীক্ষায় আসা ব্যাকরণ অংশে বাগধারার উপস্থিতি বিবেচনা করে এখানে 65০+ সংগ্রহ দেয়া হয়েছেPDF টি পোস্টের শেষে দেওয়া হয়েছে।


⇒ বাগধারা বা বাক্যরীতি

কোনো শব্দ বা শব্দ-সমষ্টি বাক্যে ব্যবহৃত হয়ে অর্থের দিক দিয়ে যখন বৈশিষ্ট্যপূর্ণ হয়ে ওঠে, তখন সে সকল শব্দ বা শব্দ-সমষ্টিকে বাগধারা বা বাক্যরীতি বলা হয়|

বাগধারাঃ যে শব্দ বা শব্দগুচ্ছ দিয়ে বিশেষ অর্থ প্রকাশ পায় তাকে বাগধারা বলে।

বাগধারায় এমন একটি শক্তি আছে যা সাধারণ অর্থে বোঝা যাবে না। যেমন: গোবরগণেশ, বিড়ালতপস্বী, গোবরে পদ্মফুল, ঘোড়ার ডিম, কই মাছের প্রাণ ইত্যাদি।

♦ বাগধারা এর তালিকা

বাগধারা সংগ্রহ (অ-ঔ)

অ আ ক খ = সাধারণ জ্ঞান
অকাল কুষ্মাণ্ড = অপদার্থ, অকেজো
অকূল পাথার = ভীষণ বিপদ
অক্কা পাওয়া = মারা যাওয়া
অগস্ত্য যাত্রা = চির দিনের জন্য প্রস্থান, শেষ বিদায়
অগাধ জলের মাছ = সুচতুর ব্যক্তি

অচল পয়সা = অকেজো হয়ে পড়া, মূল্যহীন
অর্ধচন্দ্র = গলা ধাক্কা
অন্ধের যষ্ঠি = একমাত্র অবলম্বন
অন্ধের নড়ি = একমাত্র অবলম্বন

অন্ধি-সন্ধি = গোপন তথ্য
অগ্নিশর্মা = নিরতিশয় ক্রুদ্ধ
অগ্নিপরীক্ষা = কঠিন পরীক্ষা
অগ্নিশর্মা = ক্ষিপ্ত

অন্তরটিপুনি = অলক্ষে অন্যের হৃদয়ে আঘাত দেয়া
অগাধ জলের মাছ = খুব চালাক
অতি চালাকের গলায় দড়ি = বেশি চাতুর্যর পরিণাম
অতি লোভে তাঁতি নষ্ট = লোভে ক্ষতি
অদৃষ্টের পরিহাস = ভাগ্যের বিড়ম্বনা, ভাগ্যের নিষ্ঠুরতা
অর্ধচন্দ্র দেওয়া = গলা ধাক্কা দিয়ে দেয়া
অষ্টরম্ভা = ফাঁকি
অথৈ জলে পড়া = ভীষণ বিপদে পড়া
অন্ধকারে ঢিল মারা = আন্দাজে কাজ করা
অমৃতে অরুচি = দামি জিনিসের প্রতি বিতৃষ্ণা
অনুরোধে ঢেঁকি গেলা = অনুরোধে দুরূহ কাজ সম্পন্ন করতে সম্মতি দেয়া
অল্পবিদ্যা ভয়ংকরী = সামান্য বিদ্যার অহংকার
অনধিকার চর্চা = সীমার বাইরে পদক্ষেপ
অরণ্যে রোদন = নিষ্ফল আবেদন
অহিনকুল সম্বন্ধ = ভীষণ শত্রুতা, ভীষণ বৈরীভাব
অন্ধকার দেখা = দিশেহারা হয়ে পড়া
অমাবস্যার চাঁদ = অদর্শনীয় বস্তু, দুর্লভ বস্তু


আকাশ কুসুম = অসম্ভব কল্পনা
আকাশ পাতাল = প্রভেদ, প্রচুর ব্যবধান
আকাশ থেকে পড়া = অপ্রত্যাশিত
আকাশ ভেঙে পড়া = ভীষণ বিপদে পড়া
আকাশের চাঁদ = আকাঙ্ক্ষিত বস্তু
আকাশে তোলা = অতিরিক্ত প্রশংসা করা
আকাশের চাঁদ হাতে পাওয়া = দুর্লভ বস্তু প্রাপ্তি

আকাট মূর্খ = জ্ঞানহীন
আক্কেল সেলামি = নির্বুদ্ধিতার দণ্ড
আক্কেল গুড়ুম = হতবুদ্ধি, স্তম্ভিত

আক্কেল দাঁত = বুদ্ধির পরিপক্বতা

আখের গোছানো = স্বার্থ হাসিল করা
আগুন নিয়ে খেলা = বিপদের ঝুঁকি নিয়ে কাজ করা
আগুনে ঘি ঢালা = রাগ বাড়ানো
আঙুল ফুলে কলাগাছ = অপ্রত্যাশিত ধনলাভ, হঠাৎ বড়লোক
আঠার আনা = সমূহ সম্ভাবনা
আদায় কাঁচকলায় = তিক্ত সম্পর্ক, শত্রুতা
আহ্লাদে আটখানা = খুব খুশি
আঙুল ফুলে কলাগাছ = হঠাৎ বড়লোক
আদা জল খেয়ে লাগা = উঠে পরে লাগা, প্রাণপণ চেষ্টা করা

আধাঁর ঘরের মানিক = অতি প্রিয় বস্তু

আঁতে ঘা = মনকষ্ট
আমড়া কাঠের ঢেঁকি = অপদার্থ
আমতা আমতা করা = ইতস্তত করা, দ্বিধা করা
আটকপালে = হতভাগ্য
আঠার মাসের বছর = দীর্ঘসূত্রিতা
আলালের ঘরের দুলাল = অতি আদরে নষ্ট পুত্র
আষাঢ়ে গল্প = আজগুবি কেচ্ছা, আজগুবি গল্প

আপন পায়ে কুড়াল মারা = নিজের অনিষ্ট করা


ইতর বিশেষ = পার্থক্য

ইঁদুর কপালে = নিতান্ত মন্দভাগ্য
ইঁচড়ে পাকা = অকালপক্ব
ইলশে গুঁড়ি = গুড়ি গুড়ি বৃষ্টি



উত্তম মধ্যম = প্রহার
উড়নচন্ডী = অমিতব্যয়ী
উভয় সংকট = দুই দিকেই বিপদ
উলু বনে মুক্ত ছড়ানো = অপাত্রে/অস্থানে মূল্যবান দ্রব্য প্রদান
উড়ো চিঠি = বেনামি পত্র
উড়ে এসে জুড়ে বসা = অনধিকারীর অধিকার
উজানে কৈ = সহজলভ্য

উঠতে বসতে = সব সময়
উদোর পিণ্ডি বুধোর ঘাড়ে = একের দোষ অন্যের ঘাড়ে চাপানো


ঊনপাঁজুড়ে = হতভাগ্য/ দুর্বল
ঊনপঞ্চাশ বায়ু = পাগলামি



এক ক্ষুরে মাথা মুড়ানো = একই স্বভাবের, একই দলভুক্ত
এক চোখা = পক্ষপাতিত্ব, পক্ষপাতদুষ্ট
এক মাঘে শীত যায় না = বিপদ একবারই আসে না, বার বার আসে

এক নজরে = অতি অল্প সময়ের জন্য
একাদশে বৃহস্পতি = সৌভাগ্যের বিষয়
এক বনে দুই বাঘ = প্রবল প্রতিদ্বন্দ্বী
এক ঢিলে দুই পাখি মারা = এক সাথে দুই কাজ সমাধা করা

এক কথার মানুষ = যার কথায় নড়চড় হয় না

একাই একশ = অসাধারণ কর্মকুশল
এলাহি কাণ্ড = বিরাট আয়োজন
এলোপাতাড়ি = বিশৃঙ্খলা
এসপার ওসপার = মীমাংসা



ওজন বুঝে চলা = অবস্থা বুঝে চলা/ আত্মসম্মান রক্ষা করা

ওষুধ পড়া = প্রভাপ পড়া
ওষুধে ধরা = প্রার্থিত ফল পাওয়া


বাগধারা সংগ্রহ

ক খ গ ঘ ঙ চ ছ জ ঝ ঞ )

কচুকাটা করা = নির্মমভাবে ধ্বংস করা
কচু পোড়া = অখাদ্য
কচ্ছপের কামড় = যা সহজে ছাড়ে না
কলম পেষা = কেরানিগিরি
কলুর বলদ = এক টানা খাটুনি
কথার কথা = গুরুত্বহীন কথা
কাঁঠালের আমসত্ত্ব = অসম্ভব বস্তু
কাকতাল = আকস্মিক/দৈব যোগাযোগজাত ঘটনা
কপাল ফেরা = সৌভাগ্য লাভ
কত ধানে কত চাল = হিসেব করে চলা
কড়ায় গণ্ডায় = পুরোপুরি
কান খাড়া করা = মনোযোগী হওয়া
কানকাটা = নির্লজ্জ
কান ভাঙানো = কুপরামর্শ দান
কান ভারি করা = কুপরামর্শ দান
কাপুড়ে বাবু = বাহ্যিক সাজ
কেউ কেটা = গণ্যমান্য
কেঁচো গণ্ডুষ = পুনরায় আরম্ভ
কেঁচো খুড়তে সাপ = বিপদজনক পরিস্থিতি
কই মাছের প্রাণ = যা সহজে মরে না
কুঁড়ের বাদশা = খুব অলস
কাক ভূষণ্ডী = দীর্ঘজীবী
কেতা দুরস্ত = পরিপাটি
কাছা আলগা = অসাবধান
কাঁচা পয়সা = নগদ উপার্জন
কূপমণ্ডুক = সীমাবদ্ধ জ্ঞান সম্পন্ন, ঘরকুনো

কেতা দুরস্ত = পরিপাটি
কাঠের পুতুল = নির্জীব, অসার
কথায় চিঁড়ে ভেজা = ফাঁকা বুলিতে কার্যসাধন
কান পাতলা = সহজেই বিশ্বাসপ্রবণ
কাছা ঢিলা = অসাবধান
কুল কাঠের আগুন = তীব্র জ্বালা
কেঁচো খুড়তে সাপ = সামান্য থেকে অসামান্য পরিস্থিতি
কেউ কেটা = সামান্য
কেঁচো গণ্ডুষ = পুনরায় আরম্ভ
কৈ মাছের প্রাণ = যা সহজে মরে না


খয়ের খাঁ = চাটুকার
খণ্ড প্রলয় = ভীষণ ব্যাপার
খাল কেটে কুমির আনা = বিপদ ডেকে আনা


গড্ডলিকা প্রবাহ = অন্ধ অনুকরণ

গদাই লস্করি চাল = অতি ধীর গতি, আলসেমি
গণেশ উল্টানো = উঠে যাওয়া, ফেল মারা
গলগ্রহ = পরের বোঝা স্বরূপ থাকা
গরজ বড় বালাই = প্রয়োজনে গুরুত্ব
গরমা গরম = টাটকা
গরিবের ঘোড়া রোগ = অবস্থার অতিরিক্ত অন্যায় ইচ্ছা
গুর খোঁজা = তন্ন তন্ন করে খোঁজা
গুরু মেরে জুতা দান = বড় ক্ষতি করে সামান্য ক্ষতিপূরণ
গাছে কাঁঠাল গোঁফে তেল = প্রাপ্তির আগেই আয়োজন
গা ঢাকা দেওয়া = আত্মগোপন
গায়ে কাঁটা দেওয়া = রোমাঞ্চিত হওয়া
গাছে তুলে মই কাড়া = সাহায্যের আশা দিয়ে সাহায্য না করা
গায়ে ফুঁ দিয়ে বেড়ানো = কোনো দায়িত্ব গ্রহণ না করা
গুরু মারা বিদ্যা = যার কাছে শিক্ষা তারই উপর প্রয়োগ
গোকুলের ষাঁড় = স্বেচ্ছাচারী লোক
গোঁয়ার গোবিন্দ = নির্বোধ অথচ হঠকারী
গোল্লায় যাওয়া = নষ্ট হওয়া, অধঃপাতে যাওয়া
গোবর গণেশ = মূর্খ
গোলক ধাঁধা = দিশেহারা
গোঁফ খেজুরে = নিতান্ত অলস
গোড়ায় গলদ = শুরুতে ভুল
গৌরচন্দ্রিকা = ভূমিকা
গৌরীসেনের টাকা = বেহিসাবী অর্থ
গুড়ে বালি = আশায় নৈরাশ্য


ঘর ভাঙানো = সংসার বিনষ্ট করা
ঘাটের মরা = অতি বৃদ্ধ
ঘোড়া রোগ = সাধ্যের অতিরিক্ত সাধ
ঘোড়া ডিঙিয়ে ঘাস খাওয়া = মধ্যবর্তীকে অতিক্রম করে কাজ করা
ঘোড়ার ঘাস কাটা = অকাজে সময় নষ্ট করা
ঘোড়ার ডিম = অবাস্তব
ঘরের খেয়ে বনের মোষ তাড়ানো = নিজ খরচে পরের বেগার খাটা
ঘাটের মড়া = অতি বৃদ্ধ
ঘটিরাম = আনাড়ি হাকিম



চক্ষুদান করা = চুরি করা
চক্ষুলজ্জা = সংকোচ
চর্বিত চর্বণ = পুনরাবৃত্তি
চাঁদের হাট = আনন্দের প্রাচুর্য
চিনির বলদ = ভারবাহী কিন্তু ফল লাভের অংশীদার নয়
চোখের বালি = চক্ষুশূল
চোখের পর্দা = লজ্জা
চোখ কপালে তোলা = বিস্মিত হওয়া
চোখ টাটানো = ঈর্ষা করা
চোখে ধুলো দেওয়া = প্রতারণা করা
চোখের চামড়া = লজ্জা
চুনকালি দেওয়া = কলঙ্ক
চশমখোর = চক্ষুলজ্জাহীন
চোখের মণি = প্রিয়
চামচিকের লাথি = নগণ্য ব্যক্তির কটূক্তি
চিনির পুতুল = শ্রমকাতর
চুঁনোপুটি = নগণ্য
চুলোয় যাওয়া = ধ্বংস
চিনে/ছিনে জোঁক = নাছোড়বান্দা


ছ কড়া ন কড়া = সস্তা দর
ছা পোষা = অত্যন্ত গরিব
ছাই ফেলতে ভাঙা কুলা = সামান্য কাজের জন্য অপদার্থ ব্যক্তি
ছেলের হাতের মোয়া = সামান্য বস্তু
ছুঁচো মেরে হাত গন্ধ করা = নগণ্য স্বার্থে দুর্নাম অর্জন
ছক্কা পাঞ্জা = বড় বড় কথা বলা
ছিঁচ কাদুনে = অল্পই কাঁদে এমন
ছিনিমিনি খেলা = নষ্ট করা
ছেলের হাতের মোয়া = সহজলভ্য বস্তু


জগাখিচুড়ি পাকানো = গোলমাল বাধানো
জিলাপির প্যাঁচ = কুটিলতা
জলে কুমির ডাঙায় বাঘ = উভয় সঙ্কট


ঝড়ো কাক = বিপর্যস্ত
ঝাঁকের কৈ = এক দলভুক্ত
ঝিকে মেরে বউকে বোঝানো = একজনের মাধ্যমে দিয়ে অন্যজনকে শিক্ষাদান
ঝোপ বুঝে কোপ মারা = সুযোগ মত কাজ করা


বাগধারা সংগ্রহ

ট ঠ ড ঢ ণ ত থ দ ধ ন )

টনক নড়া = চৈতন্যোদয় হওয়া
টাকার কুমির = ধনী ব্যক্তি
টেকে গোঁজা = আত্মসাৎ করা
টুপভুজঙ্গ = নেশায় বিভোর


ঠাঁট বজায় রাখা = অভাব চাপা রাখা
ঠোঁট কাটা = বেহায়া
ঠগ বাছতে গাঁ উজাড় = আদর্শহীনতার প্রাচুর্য
ঠুঁটো জগন্নাথ = অকর্মণ্য
ঠেলার নাম বাবাজি = চাপে পড়ে কাবু


ডুমুরের ফুল = দুর্লভ বস্তু
ডাকের সুন্দরী = খুবই সুন্দরী
ডুমুরের ফুল = দুর্লভ বস্তু
ডান হাতের ব্যাপার = খাওয়া
ডামাডোল = গণ্ডগোল


ঢাক ঢাক গুড় গুড় = গোপন রাখার চেষ্টা
ঢাকের কাঠি = মোসাহেব, চাটুকার
ঢাকের বাঁয়া = অপ্রয়োজনীয়
ঢেঁকির কচকচি = বিরক্তিকর কথা
ঢি ঢি পড়া = কলঙ্ক প্রচার হওয়া
ঢিমে তেতালা = মন্থর



তালকানা = বেতাল হওয়া
তাসের ঘর = ক্ষণস্থায়ী
তামার বিষ = অর্থের কু প্রভাব
তালপাতার সেপাই = ক্ষীণজীবী
তিলকে তাল করা = বাড়িয়ে বলা
তুলসী বনের বাঘ = ভণ্ড
তুলা ধুনা করা = দুর্দশাগ্রস্ত করা
তুষের আগুন = দীর্ঘস্থায়ী ও দুঃসহ যন্ত্রণা
তীর্থের কাক = প্রতীক্ষারত


থ বনে যাওয়া = স্তম্ভিত হওয়া
থরহরি কম্প = ভীতির আতিশয্যে কাঁপা


দা-কুমড়া = ভীষণ শত্রুতা
দহরম মহরম = ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক
দু মুখো সাপ = দু জনকে দু রকম কথা বলে পরস্পরের মধ্যে শত্রুতা সৃষ্টিকারী
দিনকে রাত করা = সত্যকে মিথ্যা করা
দুধে ভাতে থাকা = খেয়ে-পড়ে সুখে থাকা
দেঁতো হাসি = কৃত্তিম হাসি
দাদ নেওয়া = প্রতিশোধ নেয়া
দুকান কাটা = বেহায়া
দুধের মাছি = সু সময়ের বন্ধু


ধরাকে সরা জ্ঞান করা = সকলকে তুচ্ছ ভাবা
ধড়া-চূড়া = সাজপোশাক
ধরাকে সরা জ্ঞান করা = অহঙ্কারে সবকিছু তুচ্ছ মনে করা
ধর্মের ষাঁড় = যথেচ্ছাচারী
ধর্মের কল বাতাসে নড়ে = সত্য গোপন থাকে না
ধরি মাছ না ছুঁই পানি = কৌশলে কার্যাদ্ধার


ননীর পুতুল = শ্রমবিমুখ
নয় ছয় = অপচয়
নাটের গুরু = মূল নায়ক
নাড়ি নক্ষত্র = সব তথ্য
নিমক হারাম = অকৃতজ্ঞ
নিমরাজি = প্রায় রাজি
নামকাটা সেপাই = কর্মচ্যূত ব্যক্তি
নথ নাড়া = গর্ব করা
নেই আঁকড়া = একগুঁয়ে
নগদ নারায়ণ = কাঁচা টাকা/নগদ অর্থ
নেপোয় মারে দই = ধূর্ত লোকের ফল প্রাপ্তি


বাংলা সাহিত্যের সকল তথ্য পড়ুন এখানে ক্লিক করে


♦ বাংলা বাগধারা pdf Download Now


বাগধারা, বাংলা বাগধারা, বাগধারা pdf, বাংলা বাগধারা pdf , Bangla bagdhara pdf, bagdhara pdf download, 650 bagdhara, ৬৫০ বাগধারা pdf, বাগধারা – বাংলা ব্যাকরণ, বাগধারা বই pdf, বাগধারা বাক্য রচনা, মজার বাগধারা, উত্তম মধ্যম বাগধারা, কথার কথা বাগধারাটির অর্থ, শাপে বর’ বাগধারাটির অর্থ কি, তালকানা বাগধারার অর্থ কি, মুখ করা বাগধারাটির অর্থ কি, রামগরুড়ের ছানা বাগধারাটির অর্থ কি, সোনায় সোহাগা বাগধারার অর্থ কি, চাঁদের হাট কথাটির অর্থ কী, ঢাকের কাঠি বাগধারাটির অর্থ কি, ভূষন্ডির কাক বাগধারার অর্থ কি, গোকুলের ষাঁড় বাগধারার অর্থ

5 1 vote
Article Rating

Students Care

স্টুডেন্টস কেয়ারে সকলকে স্বাগতম! বাংলা ভাষায় জ্ঞান চর্চার সমস্ত খবরা-খবরের একটি অনলাইন পোর্টাল "স্টুডেন্ট কেয়ার"। পশ্চিমবঙ্গের সকল বিদ্যালয়, মহাবিদ্যালয় ও বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের এবং সমস্ত চাকুরী প্রার্থীদের জন্য, এছাড়াও সকল জ্ঞান পিপাসু জ্ঞানী-গুণী ব্যক্তিবর্গদের সুবিধার্থে আমাদের এই ক্ষুদ্র প্রচেষ্টা। 

Subscribe
Notify of
guest

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments
error: স্টুডেন্টস কেয়ার কতৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত !!