How to Open Indian Post Payment Bank Account || Step by Step

এখান থেকে শেয়ার করুন
  • 54
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
    54
    Shares

How to Open Indian Post Payment Bank Account

♠ ইন্ডিয়ান পোস্ট পেমেন্ট ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট কিভাবে খুলবেন

আপনারা সকলেই জানেন যে বিশ্বের সবচেয়ে বৃহৎ ডাক ব্যাবস্থা হল ভারতীয় ডাক ব্যাবস্থা। কিন্তু এবার বিশ্বের বৃহত্তম ব্যাঙ্ক ভারতের দখলে হতে চলেছে সেই বিষয়ে আপনারা খবর রেখেছেন অনেকেই। হ্যাঁ ঠিকি ভাবছেন, এখন বিশ্বের বৃহত্তম ব্যাঙ্কিং ব্যাবস্থাটি ভারতেই রয়েছে (পড়ুন কয়েক দিনের মধ্যেই হয়ে উঠবে)। কারণ সম্প্রতিকালে ভারতীয় ডাক বিভাগ বা Indian Post এখন IPPB বা Indian Post Payment Bank-এ পরিবর্তন হয়েছে। অর্থাৎ আগে Indian Post নামে পরিচিত ছিল তার সাথে Payment Bank যোগ করার ফলে এখন হয়েছে Indian Post Payment Bank । যার ফলে বিশ্বের বৃহতম ডাক ব্যাবস্থা এখন বিশ্বের বৃহত্তম ব্যাঙ্ক ব্যাবস্থাতে পরিনত হয়েছে। ভবিষ্যতে ইন্ডিয়ান পোস্ট পেমেন্ট ব্যাঙ্কের মাধ্যমে দেশের সাধারণ জনগন প্রচুর সুবিধা পেতে চলেছে সে বিষয়ে কোনো সন্দেহের অবকাশ নেই। আপনারা সকলেই ভারঈয় ডাক বিভাগের ব্যাঙ্কে নিজের অ্যাকাউন্ট খুলতে পারেন। ইন্ডিয়ান পোস্ট পেমেন্ট ব্যাঙ্কে অ্যাকাউন্ট কিভাবে খোলা যায় তা জানার ( How to Open Indian Post Payment Bank Account ) আগে এই বিষয়গুলি আগে জেনে নিন।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ১ সেপ্টেম্বর ২০১৮ তে ইন্ডিয়ান পোস্ট পেমেন্টস ব্যাঙ্ক (আইপিপিবি) শুভ সূচনা হয়েছে ৷
মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ১ সেপ্টেম্বর ২০১৮ তে ইন্ডিয়ান পোস্ট পেমেন্টস ব্যাঙ্ক (আইপিপিবি) শুভ সূচনা হয়েছে ৷

বিস্তারিত আলোচনা করার আগে আমরা Indian Post Payment Bank সম্পর্কে কিছু তথ্য জেনে নেবো।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ১ সেপ্টেম্বর ২০১৮ তে ইন্ডিয়ান পোস্ট পেমেন্টস ব্যাঙ্ক (আইপিপিবি) শুভ সূচনা হয়েছে ৷ প্রথম অ্যাকাউন্ট প্রধানমন্ত্রীর নামেই তৈরি হয়েছে ৷ এই পেমেন্ট ব্যাঙ্কের উদ্দেশ্যই পোস্ট অফিসের পরিষেবা প্রত্যন্ত গ্রাম পর্যন্ত ছড়িয়ে দেওয়াই ৷ জানা যাচ্ছে ভারতীয় ডাকবিভাগে প্রায় ১৭ হাজার জনের খাতা রয়েছে যেগুলি এখন ব্যাঙ্কের অধীনে চলে যাবে।

Indian Post Payment Bank

♠ Indian Post Payment Bank বা IPPB এর সুযোগ সুবিধা

১. জিরো ব্যালেন্স অ্যাকাউন্ট খোলার সুবিধা এই ব্যাঙ্কে পাবেন

২. ৪ শতাংশ হারে সুদ পাওয়ার সুবিধা রয়েছে

৩. Doorstep banking এর সুবিধা রয়েছে

৪. ডিজিয়াল ব্যাঙ্কিং এর সুবিধা রয়েছে

৫. অ্যাভারেজ ব্যালেন্স এর কোন বাধ্যবাধকতা নেই।

৬. তিন মাস অন্তর নূন্যতম ব্যালেন্স রাখার ঝামেলা এক্ষেত্রে নেই। রাখতে হবে না কোনো ন্যূনতম মাসিক ব্যালেন্সও

৭. মোবাইল অ্যালার্ট বিনামূল্যে

৮. মাসিক স্টেটমেন্ট সম্পূর্ণ বিনামূল্যে।

৯. ইন্টার ব্যাঙ্ক ট্রান্সফারের ক্ষেত্রে সম্পূর্ণ ফ্রী। (অন্য ব্যাঙ্কের ক্ষেত্রে মাসে ২ বার এই পরিষেবা পাবেন)

১০. IPPB ও PNB ব্যাঙ্কের ATM থেকে টাকা তোলার জন্য কোনো রকম সার্ভিস চার্জ দিতে হবে না। অন্যান্য ব্যাঙ্কের জন্য মেট্রোসিটিতে ৩ বার ও অন্যান্য স্থানে ৫ বার ট্রান্সেকশন করতে পারবেন( এর অধিক বারের জন্য ২০ টাকা করে চার্জ কাটা হবে)।

IPPB-ATM-debit-card
IPPB-ATM-debit-card

১১. একবারে ১০ হাজার এবং একদিনে ২৫ হাজার টাকা তুলতে পারেন

১২. যদি আপনার অ্যাকাউন্ট খোলার ১৪ দিনের মধ্যে আপনার অ্যাকাউন্ট বন্ধ করতে চান তাহলে কোনো প্রকার চার্জ লাগবেনা কিন্তু ১৪ দিনের পর হলে ২৫০ টাকা চার্জ লাগবে।

১৩. ATM, ডেবিড কার্ড, Phon Banking, SMS Banking ইত্যাদির সুবিধা পাবেন।

১৪. এই ব্যাঙ্কের মাধ্যমে যে কোনো ধরণের রিচার্জ, বিল পেমেন্ট করার সুবিধা পাবেন।

♠ IPPB এর কিকি প্রোডাক্ট রয়েছে সেগুলি জেনে নেবো

IPPB তে প্রধানত দুই ধরণের প্রোডান্ট রয়েছে- ১) সেভিংস অ্যাকাউন্ট ২) কারেন্ট অ্যাকাউন্ট

১) সেভিংস অ্যাকাউন্ট

সেভিংস অ্যাকাউন্টে আপনি সর্বোচ্চ ১ লক্ষ টাকা পর্যন্ত জমা রাখতে পারবেন। এর থেকে বেশি টাকা রাখলে আপনার টাকা পোস্ট অফিসের আলাদা একটি অ্যাকাউন্টে চলে যাবে।

IPPB Official Website
IPPB Official Website

এক্ষেত্রে সেভিংস অ্যাকাউন্ট এর আবার তিনই ভাগ রয়েছে। যথা-

ক) Regular Savings Account- এই ধরণের অ্যাকাউন্ট খোলার জন্য নিকটবর্তী সেবা কেন্দ্র বা Doorstep Banking এর সাহায্য নিতে পারেন। এটি সবচেয়ে সুরক্ষিত এবং সকল পরিষেবার সুবিধাযুক্ত। এই অ্যাকাউন্টে ১ লক্ষের ওপর টাকা জমা রাখলে তখন আপনার অ্যাকাউন্টটি POSA (Post Office Savings Account) তে রূপান্তরিত হয়ে যাবে।

খ) Digital Savings Account- এটি একটি অনলাইন ব্যাঙ্কিং পরিষেবা। এক্ষেত্রে অন্ড্রয়েড অ্যাপ্সের মাধ্যমে ডিজিটাল প্রক্রিয়ার ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট খুলতে হয় আধার ও প্যান কার্ডের মাধ্যমে। এক্ষেত্রে নূন্যতম বয়স ১৮ বছর হওয়া বাহ্ননীয়।

গ) Basic Savings Account- এটিও এক প্রকার সেভিংস অ্যাকাউন্ট। কিন্তু Regular Savings Account এর মত সুযোগ সুবিধা এক্ষেত্রে পাওয়া যাবেনা।

২. কারেন্ট অ্যাকাউন্ট

এই অ্যাকাউন্টটি সাধারণত বড় বড় লেন দেনের ক্ষেত্রে ব্যাবহার হয়ে থাকে

♠ সাতটি পয়েন্টের মাধ্যমে Indian Post Payment Bank এর সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেবো

১. এই ব্যাঙ্ক কাউকেই ঋণ দিতে পারেনা

 IPPB আপনার টাকা কে সম্পূর্ণ নিজের কাছেই গচ্ছিত রাখবে। আপনার টাকাকে অন্য কোনো সংস্থাকে কোনো প্রকার লোন হিসাবে প্রদান করা হবে না। অর্থাৎ আরবিআই এর গাইডলাইন অনুযায়ী এই ব্যাঙ্ক কাউকেই ঋণ দিতে পারেনা ৷ এটি সম্পূর্ণ সরকারের অধীনে থাকবে। ফলে আপনার টাকা ডুবে যাওয়ার সম্ভাবনা নেই এক্ষেত্রে।

২. টাকা রাখার উর্ধসীমা

 চাইলেই এই পেমেন্টব্যাঙ্কে ১ লক্ষ টাকাও জমা রাখতে পারেন। এই ব্যাঙ্ক সেভিংস অ্যাকাউন্টে সর্বমোট ১ লক্ষ টাকা পর্যন্ত জমা রাখা যায়। এর বেশি হলে আপনার টাকা পোস্ট অফিসের সেভিংস অ্যাকাউন্টে ট্রান্সফার হয়ে যাবে ( খেয়াল রাখবেন IPPB ও Post Office Saving Account দুটি আলাদা বিষয়)। এই বিষয়ে একটি খেয়াল রাখবেন।

৩. সুদ কত পাওয়া যাবে?

যেহেতু এই ব্যাঙ্ক নতুন খোলা হয়েছে সেহেতু আপনি অন্যান্য ব্যাঙ্কের তুলনার এই ব্যাঙ্কে সুদ বেশি পাবেন। প্রায় ৪ শতাংশ হারে আপনাকে সুদ দেওয়া হবে এবং সেটা তিনমাস অন্তর প্রযোজ্য হবে। এছাড়াও এই ব্যাঙ্কের সাথে পাঞ্জাব ন্যাশানাল ব্যাঙ্কবাজাজ অ্যালাইঞ্জ লাইফ ইন্সিওরেন্স এর সাথে গাঁটছড়া বেঁধেছে যার ফলে ভবিষ্যতে আপনি বীমা বা লোনের সুবিধাও পেতে পারেন।

৪. মোট লেন দেনের সুবিধা-

এই ব্যাঙ্কের মাধ্যমে গ্রামীণ অঞ্চলে প্রায় ১.৩০ লক্ষ টি স্থান থেকে এবং ইন্ডিয়া পোস্ট পেমেন্ট ব্যাঙ্ক পোস্ট অফিসের ১৭ কোটি অ্যাউন্টের সঙ্গে সংযুক্তিকরণের ছাড়পত্র পেয়েছে ৷ ইন্ডিয়া পোস্ট পেমেন্ট ব্যাঙ্ক সাধারণ মানুষের ক্ষেত্রে বেশ উপযোগী, সুবিধের ৷ এই ডাক বিভাগ বিশাল নেটওয়র্কের সঙ্গে সংযুক্ত ৷ দেশের ৪০ হাজারের ২.৬ লক্ষ ডাক সেবক আছেন ৷

৫. অ্যাকাউন্ট খোলার পদ্ধতি ও সুবিধা

অ্যাকাউন্ট খোলার পদ্ধতি খুবি সহজ। আপনার আধার কার্ড থেকে থাকলে খুব সহজেই আপনি এই অ্যাকাউন্ট খুলে ফেলতে পারবেন। এছাড়া এই ব্যাঙে QR Card এর ব্যাবস্থা রয়েছে যার মাধ্যমে আপনি ট্রান্সেকশন করতে পারবেন। এক্ষেত্রে চেক বই, পাস বই এর ঝামেলা থাকছেনা। এছাড়াও থাকছে বায়োমেট্রিক পদ্ধতি, রেটিনা পদ্ধতি, আঙুলের ছাপের মাধ্যমে ইত্যাদি।

৬. IPPB থেকে কি কি সার্ভিস আপনি পাবেন?

ইন্ডিয়ান পোস্ট পেমেন্ট ব্যাঙ্কে প্রধানত পাঁচটি পরিষেবা আপাতত দেওয়া হচ্ছে। অ. মোবাইল ব্যাঙ্কিং আ. এস এম এস ব্যাঙ্কিং ই. Missed Call Banking ঈ. Phone Banking উ. QR Card

IPPB Android Apps
IPPB Android Apps

অ. মোবাইল ব্যাঙ্কিং– আপনি IPPB অন্ড্রয়েড অ্যাপ ডাউনলোড করে নিজের আধার কার্ডের মাধ্যমে অ্যাকাউন্ট খুলে খুব সহজেই মোবাইল ব্যাঙ্কিং পরিচালনা করতে পারবেন।

আ. এস এম এস ব্যাঙ্কিং- India Post Payments Bank -এ SMS Banking এর সুবিধা রয়েছে। কাস্টমার খুব সহজেই এস এম এস করে নিজের ব্যালেন্স, বা মিনি স্টেটমেন্ট করে নিতে পারবে এই পরিষেবা থেকে। এর জন্য আপনাকে আপনার মোবাইল নম্বরটি রেজিস্ট্রি করতে হবে। রেজিস্ট্রেশনের পদ্ধতি হল– আপনাকে টাইপ করতে হবে “REGISTER” এবং পাঠিয়ে দিতে হবে 7738062873 এই নম্বরে। এর পর যখনি আপনার Balance enquiry প্রয়োজন হবে SMS করুণ ‘BAL’ এবং পাঠিয়ে দিন 7738062873 নম্বরে এবং Mini statement এর জন্য টাইপ করুণ ‘MINI’ এবং পাঠিয়ে দিন 7738062873 নম্বরে।

ই. Missed Call Banking- এখন শুধুমাত্র একটি Missed Call এর মাধ্যমে আপনি আপনার গচ্ছিত টাকা বা মিনি স্টেটমেন্ট এর সমস্ত তথ্য জেনে নিতে পারবেন। এর জন্য আপনাকে আগে 8424054994 এই নম্বরে Miss Call করে আপনার নম্বরটিকে রেজিস্ট্রেশন করিয়ে নিতে হবে। এর পর থেকে Balance enquiry এর জন্য Missed call করুণ 8424046556 নম্বরে এবং Mini statement এর জন্য Missed call করুণ 8424026886 নম্বরে।

ঈ. Phone Banking- আপনি কোনো কাজের মধ্যে ব্যস্ত রয়েছেন অথবা রাস্তায় আটকে রয়েছেন? কিন্তু আপনার ব্যাঙ্কের তথ্য জানার খুব প্রয়োজন হয়ে পরেছে। তাহলে চিন্তা করবেন না IPPB আপনার জন্য সারা ভারত ব্যাপী ১৩ টি ভাষায় ফোন ব্যাঙ্কিং এর সুবিধা প্রদান করে থাকে। আপনাকে শুধু মাত্র টোল ফ্রি নম্বর 155299 কল করে নিতে হবে। বাকিটা নিজেই পারবেন আশাকরা যায়।

উ. QR Card- এখন IPPB আপনার পাশ বই বহনের হাত থেকে মুক্তি দিয়েছে। মানে হল গিয়ে পাশ বি এর মাধ্যমে লেন দেনের দিন শেষ এখন আপনার কাছে QR Card থাকলেই ব্যাঙ্কে গিয়ে লেন দেন করতে পারবেন। কার্ডে দেওয়া কোড স্ক্যান করেই ট্রান্সেকশন করে নিতে পারবেন।

IPPB QR Card
IPPB QR Card

৭. ব্যাঙ্ক এখন আপনার দোর গোড়ায় (Doorstep Banking)

এটাওকি সম্ভব নাকি? ব্যাঙ্ক কিভাবে দরজার কাছে চলে আসবে বুঝতে পারছেন না? আসলে ব্যাঙ্ক আসবে না আসবে সারা দেশ ব্যাপী কয়েক লক্ষ ডাক সেবকরা। এই পরিষেবার মাধ্যমে আপনি কি কি সুবিধা পাবেন এক নজরে দেখে নিন-

ডাক সেবকের যাতায়াতের জন্য সাইকেল
ডাক সেবকের যাতায়াতের জন্য সাইকেল

ক) অ্যাকাউন্ট খোলা খ) টাকা তোলা/জমা দেওয়া গ) Money Transfers ঘ) রিচার্জ ও বিল পেমেন্ট ঙ) এছাড়াও বীমা, লোন, QR Card প্রদান, প্যান কার্ড বা নোমিনির তথ্য সংগ্রহ, ইত্যাদি পরিষেবা সরাসরি পেয়ে যাবেন। 155299 এই নম্বরে ফোন করে আপনি আপনার পরিষেবা পেতে পারবেন।

IPPB Doorstep Banking
IPPB Doorstep Banking

♠ ইন্ডিয়ান পোস্ট পেমেন্ট ব্যাঙ্কে কিভাবে অনলাইন সেভিংস অ্যাকাউন্ট খোলার পদ্ধতি

স্টেপ-১ গুগল প্লে স্টোর থেকে IIPB Mobile Banking নামক অ্যাপ্সটি ডাউনলোড করেনিন

1
1

স্টেপ-২ এবার অ্যাপসটি খুললে নিম্নলিখিত ছবির মত একটি পেজ দেখাবে। ওখানে “Open Your Account Now” অপশনে ক্লিক করে পরের ধাপে চলে যান।

2
2

স্টেপ-৩ পরের ধাপে গেলে আপনাকে নিজের চালু ফোন নম্বর ও আপনার প্যান কার্ডের নম্বর চাইবে। নম্বরটি অবশ্যই আধারের সাথে যুক্ত হতে হবে। এর পর ‘Continue’ বোতামে ক্লিক করে পরের ধাপে চলে যান।



3
3

স্টেপ-৪ এই ধাপে আপনাকে আপনার আধার নম্বর চাইবে। দিয়ে দেবেন দুইবার। এবং নিচের দুটি বক্সে টিক চিহ্ন দিয়ে। ‘Continue’বোতামে ক্লিক করে পরের ধাপে চলে যান।

4
4

স্টেপ-৫ এর পরআপনার ফোনে একটি OTP পাঠাবে। OTP নম্বরটি দিয়ে দেবেন এবং আবার কিছুক্ষনের মধ্যে আপনার আধার নম্বর থেকে আরও একটি OTP পাঠাবে। সেটাও দিয়ে দেবেন এবং পরের ধাপে চলে যাবেন।

5
5

স্টেপ-৬ এরপর নিচের ছবির মত একটি পেজ খুলে যাবে। যেখানে পাঁচটি অপশন থাকবে। যেগুলিকে একে একে পূরণ করতে হবে। প্রথম অপশনটিতে ক্লিক করুণ

6
6

স্টেপ-৭ এখানে নিচের ছবির মত একটি পেজ খুলবে। এবং ফর্মটি পূরণ করে ফেলুন। এবং পরের ধাপে চলে যান।



7
7

স্টেপ-৮ এরপর Pan and Communication Address ক্লিক করুণ

8
8

স্টেপ-৯ এখানে নিজের ঠিকা দিন। এর পর পরের ধাপে যান

9

স্টেপ-১০ এর পর nominee Details ক্লিক করুণ

10

স্টেপ-১১ যদি আপনি নোমিনি রাখতে চান তাহলে Yes করে ফর্মটি ফিলাপ করুণ তা না হলে No করে পরের ধাপে চলে যান।

11

স্টেপ- ১২ এর পর Additional Information ক্লিক করুণ

12

স্টেপ-১৩ এই পর্যায়ে ফর্মটি ফিলাপ করে ফেলুন।

13

স্টেপ- ১৪ অবশেষে Accoun Information ক্লিক করুণ এবং পরের পর্যায়ে চলে যান।

14

স্টেপ- ১৫ “Accoun statement” Yes করার পর, এখানে একটি অপশন পাবেন “Mode of Delivery”.তে ক্লিক করুণ

15

স্টেপ- ১৬ ওখানে “Online” ক্লিক করে রাখুন।

16


স্টেপ-১৭ এই ধাপে সতর্ক থাকবেন। ভুলেও “Do Not Want to DBT” অপশনে টিক দেবেন না, তাহলে আপনার LPG সাবসিডি সুবিধা হারিয়ে ফেলতে পারেন। ছবিতে যেমন রয়েছে সেরকম ভাবে করুণ।

17

স্টেপ- ১৮ এর পর আবার নিচের ছবির মত অংশে ফিরে আসবেন। কিছু করতে হবেনা শুধু পরের ধাপে চলে যান

18

 

স্টেপ-১৯ এই ধাপে আসার পর একেবারে ওপরের তিনটি অপশনে টিক দিয়ে দেবেন এবং নীচে আপনার সমস্ত তথ্য সঠিক রয়েছে কিনা দেখে নেবেন। তারপর “Confirm” অপশনে ক্লিক করে দেবেন।

19

স্টেপ-২০ এর পর আবার একবার আপনার আধার থেকে OTP পাঠাবে। OTP নম্বরটি বসিয়ে দিলেই আপনার কাজ শেষ। পরের ধাপে চলে গেলেই হবে

20
20

স্টেপ-২১ এই ধাপে আপনাকে Customer ID এবং Account no দিয়ে দেবে। এগুলি যত্ন করে গুছিয়ে রেখে দিন।

21
21

ধন্যবাদ সকলকে। আশাকরছি আমরাদের কিছুটা হলেও সাহায্য করতে পারলাম। যদি সত্যি আপনাদের কাজে লেগে থাকে তাহলে বন্ধু-বান্ধবিদের সাথে শেয়ার করে নেবেন।

আমাদের অনুমতি ছাড়া আমাদের সাইটের লেখা কোনো রকম ফেসবুক, হয়াটস অ্যাপ বা কোনো ব্লগে প্রকাশ করা যাবেনা। এই আদেশ খেলাপ হলে আমরা আইনি ব্যবস্থা নিতে পিছপা হবনা। আমাদের কপিরাইট সম্পর্কে জানার জন্য এখানে ক্লিক করুণ।

IPPB, How to Open Indian Post Payment Bank Account ,Indian Post Payment Bank ,ইন্ডিয়ান পোস্ট পেমেন্ট ব্যাঙ্ক, Adhar, Online Baking,

Students Care

স্টুডেন্টস কেয়ারে সকলকে স্বাগতম! বাংলা ভাষায় জ্ঞান চর্চার সমস্ত খবরা-খবরের একটি অনলাইন পোর্টাল "স্টুডেন্ট কেয়ার"। পশ্চিমবঙ্গের সকল বিদ্যালয়, মহাবিদ্যালয় ও বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের এবং সমস্ত চাকুরী প্রার্থীদের জন্য, এছাড়াও সকল জ্ঞান পিপাসু জ্ঞানী-গুণী ব্যক্তিবর্গদের সুবিধার্থে আমাদের এই ক্ষুদ্র প্রচেষ্টা। 

error: স্টুডেন্টস কেয়ার কতৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত !!