NVSP পোর্টালে অনলাইনে ভোটার কার্ড ভেরিফিকেশনের পদ্ধতি

এখান থেকে শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  

NVSP পোর্টালে অনলাইনে ভোটার কার্ড ভেরিফিকেশনের পদ্ধতি

গণতন্ত্রের মূল চরিত্র ভোটদাতারাই। সেই ভোটারেই ভরসা রেখে যাবতীয় পরিকল্পনা করছে নির্বাচন কমিশন। তাদের বুথের পরিকাঠামো নির্মাণ কিংবা বুথের স্থান বদল অথবা ভোটার তালিকার স্বাস্থ্যের উন্নতি— সব কিছুরই কেন্দ্রে থাকছেন ভোটারেরা। ভারতীয় নির্বাচন কমিশন ১লা সেপ্টেম্বর থেকে ‘ইলেকটরস ভেরিফিকেশন প্রোগ্রাম’ বা ইভিপি বা নির্বাচকের তথ্য যাচাই করণ প্রক্রিয়া শুরু করেছে। এই প্রক্রিয়া চলবে আগামী মাসের ১৫ তারিখ অর্থাৎ ১৫ই অক্টোবর পর্যন্ত। বাড়িতে বসেই নিজস্ব মোবাইল নাম্বারের মাধ্যমে ভোটার তালিকা আপডেট করাতে বা এই প্রক্রিয়াটি সম্পন্ন করতে পারবেন। NVSP পোর্টালে অনলাইনে ভোটার কার্ড ভেরিফিকেশনের পদ্ধতি গুলি জেনে নেবো।

কমিশনের ভোটার তালিকা-কেন্দ্রিক এই পরিকল্পনার অন্যতম কাজ হল অনলাইনের মাধ্যমে ভোটার তালিকায় থাকা নামের ঠিক-ভুল দেখে নেওয়া। সে-ক্ষেত্রে নাম, জন্ম-তারিখ, রিলেশনশিপ বা সম্পর্ক, ছবি খারাপ, লিঙ্গ-সহ বিভিন্ন বিষয়ে সমস্যা থাকলে অনলাইনের মাধ্যমে ঠিক করতে পারবেন স্বয়ং ভোটারই। নিজের তো বটেই, পরিবারের অন্যদের বিষয়টিও ঠিকঠাক করে নিতে পারবেন সংশ্লিষ্ট ভোটার।

ইলেকটরস ভেরিফিকেশন প্রোগ্রাম’ বা EVP-এ নিজের ভোটার কার্ড বা তথ্য যাচাই বা আপডেট করার জন্য তিনটি প্রক্রিয়া রয়েছে। যথা- ১) www.nvsp.in এই পোর্টালের মাধ্যমে ২) মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে ৩) সংশ্লিষ্ট এলাকার NVSP অফিসে গিয়ে নিজের তথ্য যাচাই করে নিতে পারবেন।

NVSP পোর্টালে অনলাইনে ভোটার কার্ড ভেরিফিকেশনের পদ্ধতি

‘ইলেকটরস ভেরিফিকেশন প্রোগ্রাম’ বা EVP-এ NVSP পোর্টালে অনলাইনে ভোটার কার্ড ভেরিফিকেশন চলছে। এই প্রক্রিয়াটি সম্পন্ন করার জন্য কিছু পদ্ধতি অবলম্বন করতে হবে। যেটা আজ আপনাদের জানাতে চলেছি। ধাপে ধাপে আপনাকে এই প্রক্রিয়াটি সম্পন্ন করতে হবে।

♦ রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া

ধাপ-১ www.nvsp.in এই সাইটটিতে যান। এর পর Login/Registration বোতামে ক্লিক করুণ। যদি আপনি প্রথম বারের জন্য NVSP সাইটে প্রবেশ করেন তাহলে আপনাকে রেজিস্ট্রেশন করে নিতে হবে। এক্ষেত্রে Register as New User -এ ক্লিক করে পরবর্তী পৃষ্ঠাতে গিয়ে নিচের ধাপ গুলি মেনেচলুন।

ধাপ-২ আপনার চালু মোবাইল নম্বর ও একটি ক্যাপচাটি লিখে দিয়ে Send OTP তে ক্লিক করবেন।

ধাপ-৩  আপনার দেওয়া মোবাইল নাম্বার একটি OTP আসবে। সেই OTP নির্দিষ্ট ঘরে দিতে হবে। এবং Verify তে ক্লিক করুণ। OTP নম্বর সঠিক হলে ভেরিফাই হয়ে যাবে।

ধাপ-৪ এর পড়ে নিচে আপনাকে দুটি অপশন দেখাবে। ১) I have EPIC number (অর্থাৎ আপনার ভোটার কার্ডটি রয়েছে তাহলে এটা বাছুন) ২) I don’t have EPIC number (অর্থাৎ আপনার ভোটার কার্ডটি নেই, তাহলে এটা বাছুন)। এর পর নিচের বক্সে EPIC কার্ডের নম্বরটি দেবেন। এবং নিচের বক্সে আপনার চালু ই-মেল আইডি নম্বর দেবেন।

ধাপ-৫ এরপর Password তৈরি হবে। তার জন্য পর পর দুবার পাসওয়ার্ড বসাতে হবে। একবার প্রথমে ও দ্বিতীয়বার সেটিকে কনফার্ম করার জন্য। তাহলেই রেজিস্ট্রেশন হয়ে যাবে।

♦ রেজিস্টার হয়ে যাওয়ার পর কি কি করতে হবে

ধাপ-১ পুনরায় www.nvsp.in নির্বাচন কমিশনের অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে লগ-ইন করতে হবে।

ধাপ-২ User ID দিতে হবে, আপনার পূর্ব প্রদত্ত মোবাইল নং এবং Password দিতে হবে, যেটি আপনি তৈরি করেছেন। ক্যাপচা কোডের ঘড়ে ক্যাপচা কোডটি দেখে দেখে সঠিক ভাবে লিখে দেবেন। দিয়ে Log in করে নেবেন। এবং আপনার সামনে একটি ড্যাশবোর্ড খুলে যাবে। এর পর আপনি আপনার প্রয়োজনীয় সকল কাজ গুলি করতে পারবেন। যেমন নতুন ভোটার কার্ডের তৈরি, ভোটার কার্ড সংশোধন, পরিবারের কারও ভোটার কার্ড মুছে মেলা, ভোটার কার্ড ডাউনলোড করা, ভোটার কার্ড ভেরিফিকেশন (আপনার বা পরিবারের প্রভৃতি) এর মত বিষয়গুলি করতে পারবেন।

[আরও পড়ুন- Voter helpline app এর মধ্যমে অনলাইনে ভোটার কার্ড ভেরিফিকেশনের পদ্ধতি]

আজ আমরা যেহেতু ভোটার কার্ড কিভাবে ভেরিফিকেশন করতে হয় সেই বিষয়ে আলোচনাকরছি তাই আজ শুধুই NVSP বা এনভিএসপি পোর্টালের মাধ্যমে অনলাইনে ভোটার কার্ড ভেরিফিকেশনের পদ্ধতিটি শুধু জানাবো। আপনাদের যদি NVSP বা এনভিএসপি পোর্টালের মাধ্যমে অনলাইনে নতুন ভোটার কার্ড তৈরি করার পদ্ধতি জানার প্রয়োজন হয় তাহলে কমেন্ট করে জানাবেন পরবর্তী পোস্টে তা আপনাদের জানিয়ে দেওয়া হবে।

Elector Verification Programme (EVP) সম্পর্কে ধাপে ধাপে জেনে নেওয়া যাক

ধাপ-১ প্রথমে Elector Verification Programme ট্যাবে ক্লিক করুণ।

ধাপ-২ এরপরে EVP নামক ট্যাবে গেলে আবার ৪ টি ট্যাব পাবেন।

১) Verify Self Details

২) Polling Station Feedback

৩) Family Listing & authentication

৪) Unenrolled Members

১) Verify Self Details

আপনার যেটা প্রয়োজন সেটা বেছে নেবেন। আমরা এখানে Verify Self Details এর বিষয়টি বুঝিয়ে দিচ্ছি।

ধাপ-৩ Verify Self Details-এ গেলে ভোটারের তথ্য ও পাশে View Details দেখতে পাবেন।

এখানে ভোটার নিজের নাম, বাবার নাম, বয়স ও ভোটার তালিকার বিশদ বিবরণ দেখতে পাবেন। বিবরণের নিচে দুটি অপশন দেওয়া থাকবে।

(১) সব বিবরণ ঠিক আছে।

(২) সব বিবারণ ঠিক নেই।

যদি সব বিবরণ ঠিক থাকলে কি করবেন?

এবার যদি সব বিবারণ ঠিক থাকে তাহলে নিম্নলিখিত নথিপত্রের একটিকে স্ক্যান করে আপলোড করে দিন। যে নথি আপলোডকরবেন সেই নথির নাম ও নম্বরটি লিখে দিতে হবে নির্দিষ্ট স্থানে। মনে রাখবেন স্ক্যানের সাইজ সর্বোচ্চ ২ এমবি। এর বেশি হলে আপলোড হবে না।

যে ডকুমেন্টগুলি আপলোড করতে পারবেন -১) পাসপোর্ট, ২) ড্রাইভিং লাইসেন্স, ৩) আধার কার্ড, ৪) রেশন কার্ড, ৫) সরকারি অথবা আধা-সরকারি পরিচয় পত্র, ৬) ব্যাঙ্কের পাস বই, ৭) কৃষক পরিচয়পত্র, ৮) প্যান কার্ড, (pan) ৯) NPR এর স্মার্ট কার্ড, ১০) সাম্প্রতিক জল, টেলিফোন, বিদ্যুত, গ্যাস কানেকশন, এর বিল, (যেখানে ওই ভোটারের ঠিকানা দেওয়া আছে) ১১) ECl দ্বারা অনুমোদিত অন্যান্য নথিপত্র, যেকোনো একটি।

কি ধরনের ডকুমেন্ট আপলোড করছেন সেটি পাশে দেওয়া ড্রপ ডাউন লিস্ট থেকে সিলেক্ট করতে হবে ও সবশেষে তার নম্বর পাশের বক্সে দিতে হবে এবং সাবমিট করে দিন।

যদি সব বিবরণ ঠিক না থাকে-

প্রথমে কোন কোন ক্ষেত্রে ত্রুটি আছে, সেগুলি চেক বক্সে টিক সিলেক্ট করুন।

চেকবক্স অনুযায়ী নির্দিষ্ট ফিল্ডগুলি পূরণ করুন। পূরণ করা যাবে বাংলা এবং ইংরেজি উভয় ভাষার মাধ্যমে। বাংলায় পূরণ করার জন্য ডানদিকে কিবোর্ডের আর বটন রয়েছে।

ভুল সংশোধনের করার সাথে সাথে সেই সংক্রান্ত একটি নথি আপলোড করতে হবে যার সর্বোচ্চ সাইজ হবে ২ এমবি এবং কোন নথি আপলোড করা হলো তা ডানদিকের ড্রপ ডাউন লিস্ট থেকে সিলেক্ট করতে হবে।

সবশেষে সাবমিট করার পর একটি ফর্ম নম্বর দিয়ে ফর্ম আট নিজে নিজেই তৈরি হবে যা দেখে সঠিক আছে কিনা যাচাই করে নিয়ে আবার সাবমিট করে দিতে হবে।

২) Polling Station Feedback

এই বিষয়টা কি? এটি আসলে নির্বাচন কমিশন দ্বারা একটি সমীক্ষা, আপনার ভোট দান কেন্দ্রটি কেমন, ভোট দান কেন্দ্রে যাওয়ার রাস্তার কোনো সমস্যা রয়েছে কিনা, দূরত্ব ২ কিমির মধ্যে কিনা ইত্যাদি বিষয়গুলি জানতে চাওয়া হয়েছে। আপনি চাইলে আপনার মতামত জানাতে পারেন।

৩) Family Listing & authentication

♦ NVSP পোর্টালে অনলাইনে পরিবারের সদস্যদের নাম যাচাইয়ের জন্য যা করবেন

ধাপ-১ নির্বাচন কমিশনের অফিশিয়াল পোর্টালে নিজের ইউজার আইডি ও পাসওয়ার্ড দিয়ে লগ-ইন করুন।

ধাপ-২ এবার EVP ট্যাবে গিয়ে সেখানে Family Listing & Authentication পাবেন এবং সেখান থেকে প্রথম ট্যাব অর্থাৎ Family Listing ট্যাবে যান।

ধাপ-৩ তারপর নিজের নাম ও ভোটার লিস্টের সিরিয়াল নাম্বার দেখা যাবে, পাশের Add Self to Family অপশনে ক্লিক করে নিজেকে ওই পরিবারের প্রথম সদস্য হিসেবে যুক্ত করুন। ড্রপ ডাউন বক্সে Relation Type হবে Self এবং Add Member এ ক্লিক করুন।

ধাপ-৪ এবার যাকে যাকে যুক্ত করতে চান তার EPIC No (ভোটার কার্ড নাম্বার) নির্দিষ্ট বক্সে দোয়া Add to Family বটনে ক্লিক করুন। এবার ড্রপ ডাউন বক্সে সেই ব্যক্তির সাথে নিজের Relation Type সিলেক্ট করুন। যেমন – বাবা, মা, স্ত্রী, স্বামী ইত্যাদি।

ধাপ-৫ এবার নিচে Staying With You (আপনার সঙ্গে থাকেন) অথবা Not Staying With You (আপনার সঙ্গে থাকেন না) এর মধ্যে যেটি প্রযোজ্য সেটিকে সিলেক্ট করুন।

ধাপ-৬ Not Staying With You করলে Shifted (স্থানান্তরিত) ও Deceased (মৃত) দুইটি অপসন পাবেন, এর মধ্যে যেটি প্রযোজ্য সেটিকে সিলেক্ট করুন।

ধাপ-৭ এবার নিচে অ্যাড মেম্বারে সিলেক্ট করুন, তখন ওই ব্যক্তির নাম পরিবারের তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হবে।

ধাপ-৮ পরিবারের সকলের নাম লিস্টে যুক্ত করে দেওয়ার পর নিচে ‘Have You Added all Family Members’ এর ‘Yes’ অপশনটি সিলেক্ট করে সাবমিট করলে পরিবারের তালিকা লক হয়ে যাবে আর কোন নাম পরিবারে যুক্ত করা যাবে না।

ধাপ-৯ এবার পরিবারের অন্য সদস্যদের নাম যাচাইয়ের Family Listing & Authentication ট্যাবে গিয়ে নিজের ভোটার তালিকা যাচাইয়ের পদ্ধতি অনুসরণ করুন। তারপর দ্বিতীয় ট্যাব অর্থাৎ Family Verification সিলেক্ট করতে হবে।

ধাপ-১০ এখানে পরিবারের সদস্যদের নাম ও তার পাশে নীল রঙের View Details এ গেলে ওই সদস্যদের নির্বাচনী তথ্য দেখতে পওয়া যাবে, যে ভাবে আপনি নিজের ক্ষেত্রে দেখতে পেয়েছিলেন।

প্রতিটি সদস্যের তথ্য যাচাই করুন ঠিক নিজের করা যাচাইয়ের মত।

তথ্য যাচাই হলে View Details এর বটনের রং নীল থেকে সবুজ হয়ে যাবে।

৪) Unenrolled Members

আপনার পরিবারের কোনো ব্যক্তির যদি ভোটার কার্ড না হয়ে থাকে তাদের এখানে যুক্ত করে নিতে পারবেন।

কিছু গুরুত্বপূর্ণ লিঙ্ক :
https://www.nvsp.in/
http://ceowestbengal.nic.in/
টোল ফ্রী নং : 1950

[আরও পড়ুন- Voter helpline app এর মধ্যমে অনলাইনে ভোটার কার্ড ভেরিফিকেশনের পদ্ধতি]

Students Care

স্টুডেন্টস কেয়ারে সকলকে স্বাগতম! বাংলা ভাষায় জ্ঞান চর্চার সমস্ত খবরা-খবরের একটি অনলাইন পোর্টাল "স্টুডেন্ট কেয়ার"। পশ্চিমবঙ্গের সকল বিদ্যালয়, মহাবিদ্যালয় ও বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের এবং সমস্ত চাকুরী প্রার্থীদের জন্য, এছাড়াও সকল জ্ঞান পিপাসু জ্ঞানী-গুণী ব্যক্তিবর্গদের সুবিধার্থে আমাদের এই ক্ষুদ্র প্রচেষ্টা। 

error: স্টুডেন্টস কেয়ার কতৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত !!