ভারতীয় রেলের সম্পর্কে জানা অজানা ৭৫টি তথ্য জেনে নিন | শেষ পর্ব

এখান থেকে শেয়ার করুন
  • 3
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
    3
    Shares

এর আগে আমরা ধারাবাহিক ভাবে দুটি পর্বে ভারতীয় রেলের বিভিন্ন জানা অজানা তথ্যগুলি সম্পর্কে আলোচনা করেছি। বিগত দুটি পর্বে প্রায় ৪৮টি তথ্য আমরা আপনাদের জানিয়েছি। আজ বাকিগুলি মিলিয়ে সর্বমোট ৭৫টি তথ্য সহকারে আমাদের এই বিগাগের সমাপ্ত পর্ব।  আজ বাকি তথ্য গুলি জেনে নিন।

প্রথম পর্ব পড়ার জন্য এখানে ক্লিক করুন

দ্বিতীয় পর্ব পড়ার জন্য এখানে ক্লিক করুন

৪৯. একই রাজ্যে অবস্থিত দুটি স্টেশনের সর্বাধিক দুরত্ব- মহারাষ্ট্রের কোলাপুর থেকে গোন্ডিয়া। দুরত্ব প্রায় ৯৯২ কিমি।মহারাষ্ট্রের কোলাপুর থেকে গোন্ডিয়া

৫০. সর্বাধিক জোন অতিক্রান্তকারী ট্রেন হল- রাপ্তীসাগর সুপারফাস্ট এক্সপ্রেস। যেটি এর্নাকুলাম থেকে বারাউনি পর্যন্ত চলাচল করে। মোট ৮টি জোনের মধ্যে।

৫১. সর্বাধিক সূরত্ব অতিক্রান্ত দৈনিক ট্রেন হল- কেরালা এক্সপ্রেস। ত্রিবান্দ্রাম থেকে নতুন দিল্লী পর্যন্ত প্রায় ৩,০৫৪ কিমি।

কেরালা এক্সপ্রেস
কেরালা এক্সপ্রেস

৫২. দীর্ঘতম রেলওয়ে ব্রিজ হল- ইন্দাপল্লি রেলওয়ে স্টেশন থেকে আইসিটিটি, ৪.৬২ কিমি।

৫৩ ভারতের প্রথম ডবল ডেকার AC ট্রেন চালু হয় – নভেম্বর মাসে ২০১০ সালে।

৫৪. ভারতের প্রথম রেল কোম্পানি হল- গ্রেট ইন্ডিয়ান পেনিন্সুলার রেলওয়ে কোম্পানি, যেটি ১৮৪৯ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়।

৫৫. ভারতের একই শহরে রেলের তিনটি পৃথক জোনের সদর দপ্তর অবস্থিত। সেই শহরটি হল কলকাতা। এখানে পূর্ব রেল, দক্ষিন-পূর্ব রেল ও কলকাতা মেট্রো রেলের সদর দপ্তর রয়েছে।

৫৬. ভারতীয় রেলের বৃহত্তম জোন হল- উত্তর রেলওয়ে (৬৯৬৮ কিমি)

৫৭. ভারতীয় রেলের ক্ষুদ্রতম জোন হল- উত্তর-পূর্ব সীমান্ত জোন।

৫৮. প্রথম ডবল ড্রেকার ট্রেন হল- ফ্রাইং কুইন ২০০৫ সালে চালু হয়।

৫৯. রেলের গবেষোণা ও উন্নয়ন শাখা অবস্থিত – উত্তরপ্রদেশের লক্ষৌতে।

৬০. বর্তমানে ভারতের মোট রেলওয়ে রিক্রুটমেন্ট বোর্ড রয়েছে- ১৯টি

আমাদের ফেসবুক পেজ লাইক করুন এখান থেকে।

৬১. রেলওয়ে বোর্ড গঠিত হয়- ১৯০৫ সালে।

৬২. রেলের প্রথম মিউজিয়াম স্থাপিত হয়- দিল্লিতে।

৬৩. চারিদিকে রেললাইন বেষ্টিত প্ল্যাটফর্ম হল- আইল্যান্ড প্লাটফর্ম

আইল্যান্ড প্লাটফর্ম
আইল্যান্ড প্লাটফর্মের নক্সা

৬৪. লাইফলাইন এক্সপ্রেস কে বলা হয়- চলমান রেল হাসপাতাল। এটি চালু হয় ১৬ জুলাই ১৯৯১ সালে।

৬৫. দুটি স্টেশনের মধ্যে সবচেয়ে কম দূরত্ব – সাফিলগুডা এবং দয়ানন্দ নগর স্টেশন, সেকেন্দ্রাবাদ। দূরত্ব মাত্র ১৭০ নিটার।

৬৬. ভারতের প্রথম লাক্সারী ট্রেন হল- The Palace of Whiles। এটি চালু হয় ১৯৬২ সালে। নিচে The Palace of Whiles এর কিছু সুন্দর চিত্র দেখুন-

The Palace of Whiles এর অন্দরমহলে
The Palace of Whiles এর অন্দরমহলে

The Palace of Whiles

The Palace of Whiles ২
The Palace of Whiles এর অন্দরমহলের শোয়ার কামরা

The Palace of Whiles ৩

৬৭. পশ্চিমবঙ্গের রেলের প্রথম মহিলা ট্রেন চালক হলে- প্রীতি কুমারী।

৬৮. ভারতের প্রথম ‘ওয়াই-ফাই প্রযুক্তিসম্পন্ন’ রেলওয়ে স্টেশনের নাম হল- নিউ দিল্লী।

৬৯. ভারতীয় রেলওয়ে জাতীয়করণ হয় কবে- ১৯৫১ সালে।

৭০. ভারতের সবচেয়ে শক্তিশালী রেল ইঞ্জিন হল – ভীম

৭১. সর্বাধিক রাজ্যের মধ্য দিয়ে অতিক্রান্ত ট্রেন হল- নবযুগ এক্সপ্রেস। যেটি ম্যাঙ্গালোর থেকে জম্মু তাওয়াই পর্যন্ত যাওয়ার পথে ১৩টি রাজ্যকে অতিক্রম করে।

সকল সরকারি চাকরীর পরীক্ষা প্রস্তুতির জন্য এখানে ক্লিক করুন

৭২. ভারতের সর্বোচ্চ ব্রডগেজ রেলওয়ে স্টেশন হল- অন্ধ্রপ্রদেশের শিমিলিগুড়া। যেটি সমুদ্রতল থেকে ৯৯৬ মিটার উচ্চতায় অবস্থিত।

ভারতের সর্বোচ্চ ব্রডগেজ রেলওয়ে স্টেশন হল
ভারতের সর্বোচ্চ ব্রডগেজ রেলওয়ে স্টেশন হল

৭৩. কোন্‌ রাজ্যে কোনো রেলপথ নাই- মেঘালয়

৭৪. ভারতের পুরাতণ ট্রেন যেটি এখনো চলছে- ১৮৬৪ সাল থেকে ব্যাঙ্গালোর মেল।

৭৫. ভারতের তিনটি রেলগেজ বিশিষ্ট স্টেশন হল- পশ্চিমবঙ্গের নিউ জলপাইগুড়ি, মিরাজ (মহারাষ্ট্র), ইলাহাবাদ।

৭৬. প্রথম রেল বোর্ড স্থাপিত হয় ১৯০৫ সালে।

৭৭. পশ্চিমবঙ্গের প্রথম রেল ব্যবস্থা শুরু হয় ১৫ আগস্ট ১৮৫৪ সালে হাওড়া থেকে হুগলি পর্যন্ত ৩৭ কিমি পথে।

৭৮. স্বাধীনতার পর রেলবোর্ডের প্রথম চেয়ারম্যান ছিলেন- ফতে চাঁদ বাদয়ার

৭৯. ভারতের জাতীয় রেল মিউজিয়াম অবস্থিত- চাণক্যপুরী, নতুন দিল্লি

৮০. ভারতের প্রথম রেল বাজেট হয়- ১৯২৪-২৫ সালে

৮১. রেল বাজেট পৃথক হয় কেন্দ্রীয় বাজেট থেকে- অ্যাকওয়াথ কমিটির অনুমোদনে

৮২. শেষ রেল বাজেট টি অনুষ্ঠিত হয় ২০১৬-১৭ সালে রেলমত্রী সুরেশ প্রভুর আমলে।

৮৩. সর্বাধিক রাজ্য অতিক্রমকারী ট্রেন হল- হিমসাগর এক্সপ্রেস (কাটারা থেকে কন্যাকুমারীকা পর্যন্ত ১১টি স্টপেজ)।

৮৪. ভারতের মোট ৮টি শহরে মেট্রোরেল পরিষেবা রয়েছে।

আমরা আশাবাদী আপনাদের অনেক কিছু তথ্য দিতে পেরেছি। এর মধ্যে যদি কোনো ভূল তথ্য থেকে থাকে তাহলে নিঃসন্দেহে উপযুক্ত প্রমান সহকারে আমাদের জানাতে পারবেন। এই সুযোগ আমরা আপনাদের দিয়েছি। আমাদের সাথে যোগাযোগের জন্য এখানে ক্লিক করুন

যে কোনো মতামতের জন্য নিচের কমেন্ট বক্সে কমেন্ট করে আমাদের জানান। আপনারাও আপনাদের মূল্যবান লেখা আমাদের পাঠিয়ে দিতে পারেন। লেখা পাঠানোর জন্য আমাদের নীতিমালাটি পড়ে আমাদের ইমেল ([email protected]) মারফৎ পাঠান।

Students Care

স্টুডেন্টস কেয়ারে সকলকে স্বাগতম! বাংলা ভাষায় জ্ঞান চর্চার সমস্ত খবরা-খবরের একটি অনলাইন পোর্টাল "স্টুডেন্ট কেয়ার"। পশ্চিমবঙ্গের সকল বিদ্যালয়, মহাবিদ্যালয় ও বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের এবং সমস্ত চাকুরী প্রার্থীদের জন্য, এছাড়াও সকল জ্ঞান পিপাসু জ্ঞানী-গুণী ব্যক্তিবর্গদের সুবিধার্থে আমাদের এই ক্ষুদ্র প্রচেষ্টা। 

error: স্টুডেন্টস কেয়ার কতৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত !!