বিশ্বের বৃহত্তম তৈল শোধনাগারের নাম কী? || জানুন সকল তথ্য বিস্তারিত

এখান থেকে শেয়ার করুন
  • 139
    Shares

বিশ্বের বৃহত্তম তৈল শোধনাগারের নাম

নমস্কার সকলকে। আজ আমাদের আলোচনার বিষয় বিশ্বের বৃহত্তম পেট্রোরসায়ন শিল্প সম্পর্কে। বিশ্বের বৃহত্তম পেট্রোরসায়ন শিল্পের অবস্থান কোথায় সেই বিষয়ে আজ আপনাদের জানাবো। তার আগে একটু জেনে নেওয়া যাক প্রাথমিক ধারণা গুলি।

পেট্রোলিয়াম এর দ্রব্য
চিত্রে পেট্রোলিয়াম থেকে উৎপন্ন বিভিন্ন দ্রব্য

পেট্রোরসায়ন শিল্প কি?

খনিজ তেল পরিশোধনের ফলে উৎপন্ন বিভিন্ন উপজাত দ্রব্যের (ন্যাপথা,মিথেন,ইথেন) ওপর ভিত্তি করে যেসব শিল্প গড়ে ওঠে, তাকে পেট্রোরসায়ন শিল্প বলা হয়।

 

উদীয়মান শিল্প কি?

উদীয়মান সূর্যের আলো ছড়িয়ে পড়ে চারিদিকে যেমন আলোকিত হয়ে ওঠে তেমনি পেট্রোরসায়ন শিল্পের অগ্রগতি ও গুরুপ্ত খুব কম সময়ে দ্রুত প্রসারলাভ করে।তাই একে উদীয়মান শিল্প বলা হয়।

শিল্পদানব কেন বলে?

এর থেকে উৎপাদিত দ্রব্যকে কাঁচামাল হিসাবে ব্যাবহার করে পাশাপাশি বহু অনুসারী শিল্প গড়ে ওঠে।সমস্ত শিল্প এক হয়ে বৃহদায়তন দানবের ন্যায় বিশাল শিল্পাঞ্চলে পরিণত হয়। এই কারণে একে শিল্প দানব বলে

পৃথিবীর বৃহত্তম শোধণাগার কোনটি?
উঃ- ভারতের গুজরাতের জামনগর তৈল শোধনাগার। আজকে আমরা জামনগরের সম্পর্কে কিছু তথ্য জানব।

রাতের জামনগর তৈল শোধনাগারের চিত্র
রাতের জামনগর তৈল শোধনাগারের চিত্র

অবস্থান-এটি ভারতের পশ্চিম উপকূলের রাজ্য গুজরাতে একটি SEZ অঞ্চল জামনগরে অবস্থিত।
আয়তন—এটির আয়তন প্রায় ৩০৩৫ হেক্টর এর বেশি।
পরিকল্পনা গ্রহণ ও স্থাপন—১৪ জুলাই ১৯৯৯ সালে।
উৎপাদন শুরু-২০০০ সালে প্রথম শোধনাগারের উৎপাদন শুরু হয় এরপর ২০০৮ সালে দ্বিতীয় শোধনাগারের কাজ শেষ হয়ে উৎপাদন শুরু হয়।
উৎপাদন_ক্ষমতা– এই শোধনাগারের উৎপাদন ক্ষমতা প্রায় ১.২৪ মিলিয়ন ব্যারেলস প্রতি দিনের হিসাবে।
এটির স্থাপনা করেন কে বা কোন কোম্পানি?—এটির স্থাপনা করের ভারতের বেসরকারি কোম্পানি রিলায়েন্স গোষ্ঠি এবং ভারতের সবচেয়ে ধনী ব্যাক্তি মুকেশ আম্বানি।
কাঁচামাল– এই শোধনাগারের জন্য প্রয়োজনীয়  কাঁচামাল আমদানি করা হয় আরব দেশ গুলো থেকে।
কিকি উৎপাদিত হয়?—পেট্রোল,ডিজেল,কেরসিন,এছারা বিমানের জ্বালানী,LPG, এবং এখানকার প্রধান উৎপাদিত দ্রব্য হল পলিপ্রপিলিন,যেটিকে আবার ইউরোপের বিভিন্ন দেশে রপ্তানি ও করা হয়ে থাকে।

টুকিটাকি

**এখানে দ্বিতীয় শোধনাগারটির স্থাপন করার জন্য প্রায় ২০০০০০ এর মত ইঞ্জিনিয়ারিং দ্রব্য,১.৯ মিলিয়ন কিউবিক সিমেন্ট,১৩ মিলিয়ন ফিট পাইপ,এবং ৪৪০০টির মত অন্যান্য উপকরন ব্যাবহার করা হয়েছে।
** এখানে প্রায় ৭০,০০০ শ্রমিক রোজ কাজ করে থাকে।

ভবিষ্যতে পৃথিবীর বৃহত্তম শোধোনাগার নির্মাণ প্রকল্প-

পৃথিবীর বৃহত্তম শোধোনাগার এবং পেট্রোরাসায়নিক কমপ্লেক্স গড়ে তোলার পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে ভারতের মহারাষ্ট্র রাজ্যের ‘রত্নাগিরিতে’।
Indian Oil Corporation (IOC), Hindustan Petroleum Corp Ltd (HPCL), Bharat Petroleum Corp Ltd (BPCL) এই তিনটি কোম্পানির যৌথ উদ্দ্যেগে স্থাপন করা হয়েছে Oil Marketing Companies (OMCs)।
তিনটি আলাদা আলাদা কোম্পানির মধ্যে আইওসি ৫০% এবং বাকি দুটি কোম্পানি অর্থাৎ এইচপিসিএল ও বিপিসিএল পাবে ২৫% করে শেয়ার।
এই শোধোনাগারটি পেট্রোল, ডিজেল, এলপিজি, ATF, এবং অন্যান্য পেট্রোরসায়ন দ্রব্য উৎপাদনে সক্ষম হবে।
শোধোনাগারটি সম্ভাব্য সূচনাকাল ধরা হয়েছে ২০২২ সাল। ততক্ষণ আমরা অপেক্ষা করতেই পারি!

বিশ্বের প্রথম দশটি শোধানাগারের তালিকা

  1. Jamnagar —গুজরাট, ভারত—১২৪০০০০(দৈনিক উৎপাদন)

  2. SK Energy Co. ltd —দ: কোরীয়া—১১২০০০০

  3. Paratama Refinery Complexe—ভেনেজুয়েলা—৯৪০০০০

  4. GS Called Yesu Refinery—দ: কোরীয়া—৭৩০০০০

  5. S-OIL Insan Refinery—দ: কোরীয়া—৬৬৯০০০

  6. Singapore ExxonMobil—সিঙ্গাপুর—৬০৫০০০

  7. Port Arthur Refinery—আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্র —৬০০০০০

  8. Baytown Refinery—আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্র —৫৭২৫০০

  9. Ras Tanya Refinery— সৌদিআরব — ৫৫০০০০

  10. Garyville Refinery— আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্র — ৫২২০০০


এখান থেকে শেয়ার করুন
  • 139
    Shares
error: স্টুডেন্টস কেয়ার কতৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত !!