নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষক নিয়োগের পরীক্ষায় আমূল বদল আনছে NCTE

এখান থেকে শেয়ার করুন
  • 6.3K
    Shares

Secondary & senior Secondary Tet

নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষক নিয়োগের পরীক্ষায় আমূল বদল আনছে NCTE

আপনারা সকলেই জানেন প্রথম শ্রেণি থেকে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত শিক্ষন নিয়োগের জন্য নেওয়া হত টেট পরীক্ষা (TET বা Teacher eligibility Test)। এতদিন পর্যন্ত এই প্রথাই প্রচলিত ছিল। কিন্তু এই নিয়োমের বদল আনা হচ্ছে, নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষক নিয়োগের পরীক্ষায় আমূল বদল আনছে NCTE । এখন থেকে নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষক নিয়োগের পরীক্ষায় দিতে হবে টেট। অর্থাৎ শিক্ষক নিয়োগের পরীক্ষার ক্ষেত্রে এক বিপ্লব সৃষ্টি হল বলা যেতেই পারে। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, এর আগে সর্বভারতীয় সকল চাকরীর পরীক্ষার ক্ষেত্রে আলাদা আলাদা ভাবে পরীক্ষা না দিয়ে কেন্দ্রীয় ভাবে একটি পরীক্ষা হবে, যার নাম CET বা Common eligibility TestCET এর ব্যপারে বিস্তারিত জানার জন্য এখানে ক্লিক করুণ।

এবার ফিরে আসা যাক নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণির টেট পরীক্ষার বিষয়ে। সকলেই ভাবছেন কিভাবে কোন্‌ পদ্ধতিতে নেওয়া হবে এই টেট পরীক্ষা? টেট পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হলেই কি নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষক হওয়া যাবে? পাঠক্রম কেমন হবে? এই সকল প্রশ্ন গুলিকে আজ সংক্ষেপে জানানোর চেষ্টা করবো।

তার আগে আমাদের ফেসবুক পেজটি লাইক করে নিন, এই ধরনের তথ্য আপনারা আমাদের ফেসবুক পেজ থেকে জেনে নিতে পারবেন।

নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণির টেট সম্পর্কি যাবতীয় প্রশ্ন-উত্তর

১. মোট কত নম্বরের টেট হবে?

নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণির পর্যন্ত টেট পরীক্ষার মোট নম্বর ধার্য করা হয়েছে ১৮০

২. নূন্যতম কত নম্বর পেলে টেট উত্তীর্ণ হওয়া যাবে?

মোট ১৮০ নম্বরের টেটের মধ্যে সাধারণ প্রার্থীদের (General Candidates) নুন্যতম ৬০ % নম্বর অর্থাৎ ১০৮ নম্বর পেতে হবে। এবং SC,ST,OBC,PH প্রার্থীদের ক্ষেত্রে ৫ শতাংশ ছাড় দেওয়া হয়েছে। SC,ST,OBC,PH প্রার্থীদের ৫৫% অর্থাৎ ৯৯ নম্বর পেলেই টেট উত্তীর্ণ হসাবে ধরে নেওয়া হবে।

৩. প্রতিটি পার্টে নূন্যতম কত নম্বর করে পেতে হবে?

এক্ষেত্রে একটি বাধাধরা নিয়ম রয়েছে। টেট পরীক্ষার প্রতিটি পার্টে নুন্যতপক্ষে ৪০% করে নম্বর পেতেই হবে সকলকে। অর্থাৎ যদি একটি উদাহরণ দিয়ে বলি। ধরুন কোনো একটি পার্টের মোট নম্বর রয়েছে ৫০, তাহলে আপনাকে ওই পার্টে ২০ পেতেই হবে। এবং এই নিয়ম সকল ধরনের প্রার্থীর ক্ষেত্রে (General, SC,ST,OBC,PH) প্রযোজ্য।

৪. প্রশ্নের ধারা ও মান কেমন হবে?

১৮০ নম্বরের জন্য ১৮০ টি প্রশ্ন হাকবে, প্রতিটি প্রশ্নের মান এক। প্রশ্নগুলি হবে MCQ ধাঁচে। কোনো প্রকার নেগেটিভ মার্ক থাকবে না।

৫. টেট সার্টিফিকেটের বৈধতা কত বছরের?

আপনি যদি একবার টেট উত্তীর্ণ হন তাহলে তার বৈধতা থাকবে সারা জীবন। এখানে বলে রাখা ভালো, টেট পরীক্ষা দেওয়ার কোনো রকম সীমাবদ্ধতা নেই। আপনি যতবার খুশী টেট পরীক্ষা দিতে পারেন।

৬. টেট উত্তীর্ণ হয়ে গেলেই কি শিক্ষকতা করতে পারবো?

এই বিষয়ে জানিয়ে রাখি, না পারবেন না। কারণ মনে রাখবেন “Tet (Secondary & Senior Secondary Level) is Not a Test for Recruitment” অর্থাৎ টেট কোনো নিয়োগের পরীক্ষা নয়। এটি কেবল শিক্ষক হওয়ার একটি যোগ্যতা নির্ধারক পরীক্ষা। এই পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হওয়ার পর আপনাকে আপনার বিষয় ভিত্তিক পরীক্ষা দিয়ে তবেই আপনি শিক্ষক হওয়ার নিয়োগপত্র হাতে পাবেন।

৭. যোগ্যতা

টেট পরীক্ষায় বসার জন্য যোগ্যতা কেমন লাগে সেটি এক নজরে দেখে নেওয়া যাক-

অ) নবম থেকে দশম শ্রেণির ক্ষেত্রে (Secondary Level Tet)

(ক) Bachelor of Education (B.Ed) with Pedagogy of two school Subject

অথবা

(খ) Four year integrated BA,B.Ed, B.sc. B.Ed, B.A.Ed, B.sc.Ed or an equivalent programme with pedagogy of two school Subject

আ) একাদশ থেকে দ্বাদশ শ্রেণির ক্ষেত্রে (Senior Secondary Level Tet)

(ক) Master Degree in a school Subject

অথবা

(খ)  Bachelor of Education (B.Ed) with Pedagogy of the concerned school subject

অথবা

(গ) Four year integrated BA,B.Ed, B.sc. B.Ed, B.A.Ed, B.sc.Ed or an equivalent programme with pedagogy of two school Subject

অথবা

(ঘ) M.sc.Ed or Equivalent.

৮. সিলেবাস ও নম্বর বিভাজন

অ) নবম-দশম শ্রেণির জন্য-

* মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষন- শিখন সংক্রান্ত ৪০ নম্বরের প্রশ্ন।

* প্রথম ভাষা থেকে- ২০ নম্বর

* দ্বিতীয় ভাষা থেকে ২০ নম্বর

* শিক্ষা সংক্রান্ত মূল্যায়ন বিষয়ে থাকবে ২০ নম্বর

নবম-দশম শ্রেণীর টেটের নম্বর বিভাজন
নবম-দশম শ্রেণীর টেটের নম্বর বিভাজন

* যেকোনো দুটি বিষরের ওপর পেডাগগির প্রশ্ন ও বিষয় ভিত্তিক প্রশ্ন থাকবে মোট ৮০ টি ৮০ নম্বর।

* বিজ্ঞান বিভাগের ক্ষেরে মোট চারটি বিষয় থাকবে যথা- গণিত, পদার্থবিদ্যা, জীববিদ্যা ও রসায়ন। এই চারটির মধ্যে আপনাকে যেকোনো দুটি পছন্দ করে নিতে হবে।

* কলা বিভাগের ক্ষেত্রে চারটি বিষয় হল- বাংলা, ইংরেজি, ইতিহাস, ভূগোল। এই চারটি থেকে যেকোনো দুটি পছন্দ করে নিতে হবে।

* যে দুটি বিষয় পছন্দ করলেন, সেই দুটি বিষয় থেকে মোট ৮০ নম্বরের প্রশ্ন থাকবে। এর মধ্যে (২৪+২৪)=৪৮ নম্বর থাকবে সংশ্লিষ্ট বিষয় ভিত্তিক প্রশ্ন এবং বাকি (১৬+১৬)=৩২ নম্বর থাকবে ওই দুইটি বিষয়ের পেডাগজি সংক্রান্ত প্রশ্ন।

আ) একাদশ-দ্বাদশ শ্রেণির জন্য-

* উচ্চ মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষন- শিখন সংক্রান্ত ৫০ নম্বর

* প্রথম ভাষা থেকে ২০

* দ্বিতীয় ভাষা থেকে ২০ নম্বর

একাদশ-দ্বাদশ শ্রেণীর এট পরীক্ষার নম্বর বিভাজন
একাদশ-দ্বাদশ শ্রেণীর এট পরীক্ষার নম্বর বিভাজন

* শিক্ষা সংক্রান্ত মূল্যায়ন বিষয়ে থাকবে ২০ নম্বর

* একাদশ-দ্বাদশ শ্রেণিতে একটি বিষয় বাছতে হবে। সেখান থেকে পেডাগগি এবং বিষয় ভিত্তিক প্রশ্ন থাকবে।

* সংশ্লিষ্ট একটি বিষয় থেকে মোট ৭০ নম্বরের পরীক্ষা দিতে হবে। এর মধ্যে ৪২ নম্বর থাকবে সংশ্লিষ্ট বিষয়ের বিষয় ভিত্তিক প্রশ্ন এবং বাকি ২৮ নম্বর থাকবে ওই বিষয়ের পেডাগগি বিভাগ থেকে।

আশাকরি সকলকে সংক্ষেপে ব্যাপারগুলি বোঝাতে পারলাম। যদি কিছু ভুল তথ্য থাকে আপনারা অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন। অথবা ইমেল করবেন (helpline.studentscare@gmail.com)। পরবর্তীকালে যদি আরও বিস্তারিত তথ্য সরকারিভাবে পাওয়া যায় তথন এই পোস্টটি সময়ে সময়ে আপডেট হতে থাকবে। ধন্যবাদ সকলকে।

ট্যাগ- নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণী টেট , নবম দ্বাদশ টেট প্রস্তুতি, নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণী শিক্ষক নিয়োগেও দিতে হবে টেট, নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষক নিয়োগের পরীক্ষায় আমূল বদল আনছে NCTE ,Secondary & senior Secondary Tet, NCTE New rule about teacher recruitment,

এখান থেকে শেয়ার করুন
  • 6.3K
    Shares
error: স্টুডেন্টস কেয়ার কতৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত !!